গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে কলড্রপ প্রতারণার অভিযোগ

grameenphone logo abs

নেটওয়ার্ক জনিত সমস্যার কারণে অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে হঠাত মোবাইল ফোনে কল কেটে গেলে সেটা ফোনের উভয় প্রান্তের ব্যবহারকারীর জন্যই বিব্রতকর। এ ব্যাপারে নিশ্চয়ই টিভি’তে অ্যাড দেখে থাকবেন। এই বিব্রতকর পরিস্থিতে গ্রাহকদের কিছুটা স্বস্তি বা ক্ষতিপূরণ দিতে দেশের একাধিক মোবাইল ফোন অপারেটরে প্রায় একই সময়ে ‘কল ড্রপে টকটাইম ফেরত’- এ ধরণের কিছু ফিচার চালু হয়েছিল।

গ্রামীণফোন গত বছর অক্টোবরে বলেছিল “আমাদের শক্তিশালী নেটওয়ার্কের ওপর সবাই যেন আস্থা রাখতে পারেন, সেজন্য আমাদের নেটওয়ার্কের আওতায় যেসব গ্রাহক ফোন কল ড্রপের সম্মুখিন হচ্ছেন, তাদের সেই ড্রপ হওয়া কলের জন্য ৬০ সেকেন্ড ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।”এই সুবিধার আওতায় একজন গ্রাহক জন্য দিনে সর্বোচ্চ ৫ মিনিট ‘কল ফেরত’ বা টকটাইম ফেরত পেতেন।

কিন্তু এই ফিচারটি হঠাত করেই বন্ধ করে দিয়েছে ৫ কোটির বেশি ব্যবহারকারীর মোবাইল ফোন অপারেটর জিপি। অভিযোগ উঠেছে যে, গ্রাহকদের না জানিয়েই কলড্রপে টকটাইম (ক্ষতিপূরণ) দেয়ার অফারটি বন্ধ করা হয়েছে। এমনকি এ ব্যাপারে পত্রিকায় বিজ্ঞাপনও চোখে পড়েনি গ্রাহকদের। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের খবর।

কনজ্যুমার্স অ্যাসোসিয়েশেন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) এর সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূন কবির ভূইয়া পত্রিকাটির সাথে সাক্ষাৎকারে বলেন, “গ্রামীণফোন গ্রাহকদের ভাল নেটওয়ার্কের আশ্বাস দিয়ে ভোগান্তিতে ফেলেছে। এটা এক কথায় প্রতারণা।”

কল ড্রপের ক্ষতিপূরণ দেয়ার ফিচারটি বন্ধের বিষয়ে গ্রাহকদের জানানো হয়েছিল বলে গ্রামীণফোন কর্তৃপক্ষ দাবি করলেও কবে কীভাবে জানানো হয়েছিল সে তথ্য দিতে পারেনি দেশের সর্ববৃহৎ এই মোবাইল ফোন অপারেটর।

আপনি কি গ্রামীণফোনের কল ড্রপের ক্ষতিপূরণ পেয়েছেন? এটি বন্ধ হয়ে যাওয়া সম্পর্কে জিপি থেকে কোনো মেসেজ বা বিজ্ঞাপন আপনার নজরে এসেছে? অনুগ্রহ করে কমেন্টের মাধ্যমে সবার সাথে শেয়ার করুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 4,969 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.