ক্যান্সারে আক্রান্ত একজন ‘মহৎ বালকের’ গল্প

চীনের গুয়াংডং প্রদেশের শেনঝেনে ১১ বছর বয়সী একটি ছেলের শেষ ইচ্ছে অনুযায়ী তার কিডনি ও লিভার দান করে দেয়া হয়েছে। লিয়াং ইয়াওয়ি নামের এই শিশুটি প্রাইমারি স্কুলে পড়ার সময় হঠাত একদিন মাথা ঘুরে পড়ে যাওয়ার উপক্রম হয় এবং পরের দিন সে হাঁটতে সমস্যা বোধ করে। এসময় হাসপাতালে নিয়ে গেলে ৯ বছর বয়সে লিয়াংয়ের ব্রেইনে টিউমার ধরা পড়ে।

দুই বছর ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াইয়ের পর, ১১ বছর বয়সী লিয়াং ইয়াওয়ি গত ৬ই জুন মৃত্যু বরণ করে। বিদায়ের আগে এই কিশোর তার মায়ের কাছে শেষ ইচ্ছে হিসেবে নিজের অঙ্গ দান করার আকাঙ্ক্ষা ব্যক্ত করে।

লিয়াং তার মাকে বলে, মৃত্যুর পরে তাকে যেন দান করে দেয়া হয়। প্রথমে মা তার কথা বুঝতে পারেননি। এরপর লিয়াং আরও ব্যাখ্যা করে বলে, তার অংগ-প্রত্যংগ যেন দান করা হয়।

ছেলেটি বলে, ‘পৃথিবীতে অনেকেই অনেকে ভাল ভাল কাজ করে যাচ্ছেন। তাঁরা মহৎ, আমিও একজন মহান শিশু (Great Kid) হতে চাই। ’

লিয়াংয়ের শেষ ইচ্ছে পূরণের জন্য তার মা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে কিশোরটির কিডনি ও লিভার দান করে দেন। পোস্টের শুরুতে দেয়া ছবিতে দেখুন, প্রাণহীন লিয়াংকে নিয়ে যাওয়ার সময় ডাক্তাররা এই ‘Great Kid’ এর প্রতি অবনত মস্তকে সম্মান প্রদর্শন করছেন। আরেকটু খেয়াল করলে শিশুটির মাকেও ক্রন্দনরত অবস্থায় দেখবেন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,812 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.