বাংলাদেশ-ভারত সমুদ্রসীমা মামলার রায় প্রকাশ

বঙ্গোপসাগরের প্রায় ২৫ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা নিয়ে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যকার বিরোধ মামলার রায় প্রকাশিত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, বঙ্গোপসাগরে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বিরোধপূর্ণ ২৫ হাজার ৬০২ বর্গ কিলোমিটার এলাকার মধ্যে ১৯ হাজার ৪৬৭ বর্গ কিলোমিটার এলাকা পেয়েছে বাংলাদেশ। রায়ে ভারত পেয়েছে ৬ হাজার ১৩৫ বর্গ কিলোমিটার।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “এই রায় উভয় রাষ্ট্রের জন্য বিজয় নিশ্চিত করেছে। এ বিজয় বন্ধুত্বের বিজয়। এ বিজয় বাংলাদেশ ও ভারতের জনগণের বিজয়।”

“ন্যায্যতা নিশ্চিত বরার জন্য ট্রাইব্যুনাল বিরোধপূর্ণ আনুমানিক ২৫ হাজার ৬০২ বর্গ কিলোমিটার সমুদ্র এলাকার মধ্যে ১৯ হাজার ৪৬৭ বর্গ কিলোমিটার সমুদ্র এলাকা বাংলাদেশকে দিয়েছে।”

সমুদ্রসীমা নিয়ে বিরোধের শান্তিপূর্ণ সমাধানে সদিচ্ছা দেখানোয় এবং ট্রাইব্যুনোলের রায় মেনে নেয়ার জন্য ভারত সরকারকে সাধুবাদ জানান বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

ভারতের সঙ্গে এই নতুন সমুদ্রসীমা নির্ধারণ করে দিয়েছে নেদারল্যান্ডসের হেগে অবস্থিত আন্তর্জাতিক সালিশি আদালত।

গতকাল সোমবার নেদারল্যান্ডসের স্থায়ী সালিশি আদালত বা পার্মানেন্ট কোর্ট অব আর্বিট্রেশন (পিসিএ) এর রায়ের অনুলিপি বাংলাদেশ ও ভারতের কাছে হস্তাতান্তর করা হয় এবং আদালতের কার্যবিধি অনুযায়ী আজ তা জনসম্মুখে প্রকাশ করা হয়।

২০১৩ সালের ৯ থেকে ১৮ ডিসেম্বর নেদারল্যান্ডসের রাজধানী হেগে অবস্থিত পার্মানেন্ট কোর্ট অব আর্বিট্রেশনে (পিসিএ) সমুদ্রসীমা নির্ধারণের পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেছিল বাংলাদেশ ও ভারত।

সূত্রঃ পার্মানেন্ট কোর্ট অব আর্বিট্রেশন (পিসিএ),  ইনডিপেন্ডেন্ট টিভি, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম, প্রথম আলো

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,841 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.