মোবাইল চুরি কমাতে এন্ড্রয়েড ও উইন্ডোজ ফোনে আসছে ‘কিল সুইচ’

kill switch mobile 1ক্রমবর্ধমান মোবাইল চুরি রোধে গুগলমাইক্রোসফট তাদের নিজ নিজ মোবাইল অপারেটিং সিস্টেমে নতুন ফিচার ‘কিল সুইচ’ চালু করতে যাচ্ছে যা বেহাত হয়ে যাওয়া স্মার্টফোনকে ‘পুরোপুরি অব্যবহারযোগ্য’ করে তুলতে পারবে।

‘সিক্যুর আওয়ার স্মার্টফোন’ প্রোগ্রামের ফলস্বরূপ দুই ধরণের কিল সুইচ পাওয়া যাবে এন্ড্রয়েডউইন্ডোজ ফোন অপারেটিং সিস্টেমে। একটি হচ্ছে ‘হার্ড’ কিল সুইচ অপরটি ‘সফট’।

সূত্রের রেফারেন্সে বিবিসি জানাচ্ছে, হার্ড কিল সুইচ চালু করলে স্মার্টফোনটি সম্পূর্ণ অকেজো হয়ে যাবে। তখন এটি একটি পেপারওয়েট বা খেলনা ছাড়া আর কোনো কাজে ব্যবহার করা যাবেনা। অপরদিকে সফট কিল সুইচ ডিভাইসটিকে সাময়িকভাবে অব্যবহারযোগ্য করে রাখবে, যা প্রকৃত ব্যবহারকারী কর্তৃক আনলক করা যাবে।

অবশ্য, কিল সুইচেরও কিছু সীমাবদ্ধতা আছে। প্রথমত, ফোন ‘কিল’ করার জন্য নেটওয়ার্ক অপারেটরের সাহায্য দরকার হবে। চুরি হওয়া ফোনে মোবাইল অপারেটরের নেটওয়ার্কের মাধ্যমেই কিল কমান্ড সেন্ড করতে হবে। সুতরাং বেহাত হওয়ার পর সেটগুলোতে কোনো সিমকার্ড ব্যবহার না করলে কিংবা ‘ফ্লাইট মুডে’ নিয়ে অফলাইনের রাখা হলে এতে আর কোনো নেটওয়ার্কও আসবেনা, ফলশ্রুতিতে ডিভাইস কিল করাও সম্ভব হবেনা।

কেউ কেউ দাবি করছেন, অদূর ভবিষ্যতে হ্যাকাররা কিল সুইচ ঠেকানোর উপায়ও বের করে ফেলতে পারে। তাদের মতে, স্মার্টফোন স্থায়ীভাবে অকেজো করার একমাত্র উপায় হল এর যান্ত্রিক কাঠামোর গঠন ধ্বংস করে ফেলা।

যাইহোক, অ্যাপল ও স্যামসাং ইতোমধ্যেই তাদের নিজ নিজ ডিভাইসে এ জাতীয় ফিচার প্রদান করে আসছে। আর বছরখানেকের মধ্যেই এন্ড্রয়েড ও উইন্ডোজ ফোন ওএসেও কিল সুইচ চালু হবে বলে জানা গেছে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 4,980 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.