ফ্রিল্যান্সারের ডায়েরিঃ শুধু ভাল থেকো, দূরে থেকে হলেও…

ফ্রিল্যান্সারের ডায়েরিঃ Life Beyond the Techতখন প্রাইমারি স্কুলে ভর্তি হয়েছি কেবল। আমাদের বাড়ির কাছাকাছি বাজারে সপ্তাহে শুক্র ও সোম- এই দুই দিন “হাটবার” ছিল। এক হাটবারে বাজার থেকে কয়েকটি গ্যাসবেলুন কিনেছিলাম। সূতোয় বাঁধা বেলুনগুলো নিয়ে বাড়ির উঠোনে আসতেই ওরা কিভাবে যেন আমার ছোট্ট হাতকে ফাঁকি দিয়ে শূন্যে উড়াল দেয়। কিন্তু একটু উপরে উঠে খেজুর গাছের সাথে সূতো বেঁধে যায়। ছাদে উঠে অনেক চেষ্টা করেও বেলুনগুলো আর ফিরিয়ে আনতে পারিনি।

কিছুক্ষণ পরে খেয়াল করলাম খেজুর কাঁটায় লেগে বেলুনগুলো ফেটে যেতে পারে। তখন কী যেন মনে করে লাঠির মাথায় কাপড় জড়িয়ে বেলুন বাঁধা সূতোটা গাছ থেকে ছাড়িয়ে একটু দূরে ঠেলে দিয়েছিলাম- যাতে ওগুলো অক্ষত থাকে। কৌশল সফল হল, ওরা এক মুহুর্ত দেরি না করে উড়াল দিল। শখ করে সদ্য কেনা লাল রঙের দুইটি বেলুন চোখের সামনে দিয়ে আকাশে উড়ে যাওয়ার সেই দৃশ্য এখনও মন খারাপের কারণ হয়। তবুও, এই ভেবে ভাল লাগে যে, বেলুনগুলো আমার কাছে না থাকলেও অন্তত “ভাল” ছিল-  হয়ত বহুদিন নীল আকাশে স্বাধীনভাবে উড়ে বেড়িয়েছিল। আমার ছোট্ট আঙুলগুলোর কথা নাইবা মনে রাখল, তবুওতো কিছুক্ষণের মধ্যে মনে একটা স্থায়ী আসন করে নিল!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 3,358 other subscribers

Comments