গুগলে দ্রুত সঠিক তথ্য খুঁজে পাওয়ার কৌশল

বর্তমান বিশ্বে তথ্য খুঁজে পেতে গুগলের বিকল্প পাওয়া কঠিন। ইয়াহু কিংবা মাইক্রোসফটের বিং নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হলেও গুগলই এখন সবচেয়ে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন। প্রতিনিয়ত আমরা গুগলে অনেক কিছুই সার্চ করে থাকি, কিন্তু সবসময়ই কি কাঙ্খিত উত্তরটি খুঁজে পাই? গুগলে দ্রুত কোনো নির্দিষ্ট বিষয়ে তথ্য খুঁজে পেতে বেশ কিছু লুকানো ট্রিকস রয়েছে। গুগল সার্চ করবার সময় এসব ব্যবহারে আপনার সার্চ হয়ে যাবে আরও অনেক সহজ।

শুধু সার্চের কাজেই নয়, গুগলের মাধ্যমে আপনি আরও অনেক কাজ সহজে করে ফেলতে পারবেন এসব ট্রিকস ব্যবহার করে। যেমন: নির্দিষ্ট সাইজের ছবি খুঁজে পাওয়া, ট্রান্সলেশন করা, ক্যালকুলেটর হিসেবে ব্যবহার ইত্যাদি। অর্থাৎ গুগল শুধু সার্চ ইঞ্জিন নয় বরং একটি পাওয়ারফুল টুল। শুধুমাত্র সঠিক ব্যবহার জানবার মাধ্যমেই গুগলের পূর্ণ সুবিধা আপনি সহজে উপভোগ করতে পারবেন। আজকের আলোচনার বিষয়বস্তু গুগলের এসব সার্চ ট্রিকস। এসব টিপস এবং ট্রিকস সম্পর্কে জানার মাধ্যমে গুগলের আরও উন্নত ব্যবহার শিখে ফেলতে পারবেন আপনি। কাজেই পুরো পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়ে নিতে পারেন।

নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটের মধ্যে তথ্য খোঁজা

কোনো বিষয়ে নির্দিষ্ট একটি ওয়েবসাইটে তথ্য খুঁজতে চাচ্ছেন? অনেক সময় বিভিন্ন ওয়েবসাইটের মধ্যে দেয়া বিল্ট-ইন সার্চ সুবিধাটি খুব একটা পারদর্শী হয়না। সেক্ষেত্রে গুগলে এভাবে লিখুন যা খুঁজতে চান site:সাইটের ঠিকানা। উদাহরণঃ আপনি যদি বাংলাটেক২৪ ডটকম ওয়েবসাইটে আইফোন সম্পর্কে সকল তথ্য খুঁজতে চান, তাহলে গুগলে এটা লিখে সার্চ করুন iphone site:banglatech24.com

সার্চের বাক্য থেকে যে কোনো শব্দ বাদ দেয়া

আমরা অনেক সময় এমন বিভিন্ন বাক্য লিখে সার্চ করি যার মধ্যে থেকে নির্দিষ্ট কোনো শব্দ যেনো সার্চ রেজাল্টে না আসে এমনটা দরকার হয়। কিন্তু নির্দিষ্ট ট্রিকস না জানার কারণে সকল সার্চ রেজাল্ট থেকে আলাদা করে সঠিক রেজাল্ট খুঁজে পেতে সময় নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু সহজেই সার্চ বাক্য থেকে যে কোনো শব্দ বাদ রাখা যায় একটি ‘-‘ চিহ্ন ব্যবহার করে। ধরুন আপনি সার্চ করছেন ‘How to make a new table?’ এই বাক্যের ‘new‘ শব্দটি কোনো সার্চ রেজাল্টে যেন না থাকে সেটি নিশ্চিত করতে ‘new’ শব্দের আগে একটি ‘-‘ বসিয়ে দিলেই হয়। অর্থাৎ আপনাকে সার্চ করতে হবে ‘How to make a -new table?’ লিখে। তাহলেই ‘new’ শব্দ ব্যতিত সকল সার্চ রেজাল্ট দেখা যাবে।

গুগলে সংরক্ষিত (কোনো সাইটের) ক্যাশ পেতে

গুগল বিভিন্ন ওয়েব পেইজের ক্যাশ (Cache ) জমা রাখে। সেসব সাইটের সার্ভার বন্ধ থাকলেও/পেইজ মুছে গেলেও গুগল ক্যাশ থেকে নির্দিষ্ট কিছু সময় পর্যন্ত সেসব পেইজ কনটেন্ট ভিজিট করা যায়। অনলাইনে থাকা সাইটের গুগল ক্যাশ ভিজিট করেও সাইটের পুরাতন সংস্করণ দেখা যায়। গুগল ক্যাশ দেখার জন্য সাইটের ঠিকানা লেখার আগে Cache: লিখুন এবং পুরোটাই গুগলে সার্চ করুন। আপনি ভাগ্যবান হলে পেয়েও যেতে পারেন সেই সাইটের/পেইজের গুগল ক্যাশ।

উদাহরণঃ cache:https://banglatech24.com/

এছাড়া, গুগলে কোনো কিছু সার্চ করলে যে সার্চ রেজাল্ট আসে, তার সবুজ রঙের লিংকের ডানপাশে থাকা ত্রিভুজ আকৃতির চিহ্নের ওপর ক্লিক করেও সেই ঠিকানার ক্যাশ করা কনটেন্ট দেখা যাবে।

সুনির্দিষ্ট কোনো বিষয় খুঁজতে

আপনি যদি সুনির্দিষ্ট কোনো বিষয়ে তথ্য খুঁজতে চান তাহলে কোটেশন ব্যবহার করতে পারেন। যেমন, Amazon Echo review লিখে সার্চ দিলে গুগল আপনাকে ৩৭ মিলিয়ন রেজাল্ট দেখাবে। আর যদি “Amazon Echo review” লিখে সার্চ দেন তবে এটি আপনাকে আরো সংক্ষেপে ১,২৮,০০০ রেজাল্ট দেখাবে।

বিষয় নির্দিষ্টকরণ

মনে করুন আপনি jaguar car খুঁজতে চান। সেক্ষেত্রে শুধু jaguar লিখে সার্চ করলে আপনি জাগুয়ার পশু সম্পর্কিত লিংক/ছবিও দেখতে পাবেন। এজন্য আপনাকে car বিষয়টি উল্লেখ করে দিতে হবে। সেক্ষেত্রে jaguar +car  লিখে সার্চ করুন।

নির্দিষ্ট ফরম্যাটের ফাইল

কোনো নির্দিষ্ট ফরম্যাটের ফাইল খুঁজে পেতে ফাইল ফরম্যাট উল্লেখ করে দিন। যেমন, কোনো বিষয়ের পাওয়ার পয়েন্ট ফাইল খুঁজে পেতে চাইলে ফাইলের ধরন উল্লেখ করে দিন এভাবে Laptop Computer filetype:ppt

ছবি দিয়ে ছবি সার্চ করা

গুগলে ছবি ব্যবহার করে ছবি খোঁজার জন্য আপনাকে প্রথমে গুগল হোম/সার্চ পেজের উপরের দিকে থাকা Images লিংকে ক্লিক করে গুগল ইমেজেস পেজে যেতে হবে। ওখানে ড্রাগ-ড্রপ বা ক্যামেরা চিহ্নিত বাটনে ক্লিক করে ছবি সিলেক্ট করে দিলেই ছবি আপলোড হয়ে আপনাকে আপলোডকৃত ছবির অনুরূপ ছবি দেখাবে। এছাড়া যেকোনো সার্চ ফলাফল প্রদর্শিত হওয়ার সময় সেই পেজের উপরের দিকে Images লেখায় ক্লিক করেও সংশ্লিষ্ট ইমেজ খুঁজে পাওয়া যাবে। তবে এটা যে সবসময়ই আপনাকে সঠিক তথ্য দেখাবে এমন নয়।

নির্দিষ্ট সাইজের ইমেজ ফাইল খুঁজে পাওয়া

আপনি গুগল ব্যবহার করে আপনার যেমন সাইজের ইমেজ ফাইল দরকার হবে ঠিক তেমন সাইজের ইমেজ বের করে ফেলতে পারবেন খুব সহজেই। এর জন্য আপনাকে সার্চ বক্সে নির্দিষ্ট একটি টার্ম যুক্ত করে দিতে হবে। এই টার্মটি হলো ‘imagesize:’

ধরুন আপনি সুন্দর বিড়ালের ছবি খুঁজে পেতে চাচ্ছেন ৫০০x৫০০ সাইজে। তখন আপনাকে সার্চ বক্সে লিখতে হবে ‘cute cat images imagesize:500×500’। এবার আপনি সার্চ রেজাল্টে ৫০০x৫০০ সাইজের ছবিগুলো দেখতে পাবেন।

একই ধরনের ওয়েবসাইট খুঁজতে

একই ধরনের ওয়েবসাইট খুঁজতে related শব্দটি ব্যবহার করতে পারেন।

যেমনঃ related:bbc.com

ক্যালকুলেটর

গুগলের সার্চ বারকে সরাসরি আপনি ক্যালকুলেটর হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। যেমন 505*50 লিখে এন্টার দিলে 505 ও 50 সংখ্যাদুটির গুণফল বের করা যাবে।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

google

👉 জিমেইল বা গুগল অ্যাকাউন্টের বিভিন্ন তথ্য পরিবর্তন করার নিয়ম

ভুলে যাওয়া টার্ম মনে করিয়ে দিতে *

অনেক সময় দেখা যায় আমরা নির্দিষ্ট কোনো বিষয় খুঁজে পেতে চাই গুগলে কিন্তু সেই বিষয়ের সঠিক টার্ম আমাদের মনে নেই। ফলে কী লিখে সার্চ করতে হবে এটি অনেক সময় আমরা বুঝতে পারি না। এজন্য আছে * সাইনটি। সার্চের সময় এটি যুক্ত করে দিলে ওই সার্চের সাথে সম্পর্কিত বিভিন্ন টার্ম দেখাবে গুগল।

ধরুন অর্থ বিষয়ক একটি টার্ম আপনার মনে নেই। আপনি সার্চ করতে পারেন ‘the * of money’ লিখে। এবার গুগল আপনাকে অনেকগুলো সার্চ রেজাল্ট দেখাবে এই সংক্রান্ত। যেমন: “the exchange of money”, “the use of money”, “the role of money”, “the psychology of money” ইত্যাদি। এখান থেকে খুব সহজে আপনি নির্দিষ্ট টার্ম খুঁজে পেতে পারেন।

And/Or ব্যবহারে দুটি বিষয়ে একসাথে সার্চ

আপনি যদি দুটি বিষয়ে সম্পর্কযুক্ত কোনো বিষয়ে সার্চ করতে চান তবে দুটি বিষয়কে And/Or দিয়ে যুক্ত করে দিতে পারেন। এর ফলে গুগল একই সাথে আপনাকে দুটি টার্মের বিভিন্ন সার্চ রেজাল্ট দেখাবে।

‘Windows or Linux’ লিখে সার্চ করলে গুগল আপনাকে দুটি অপারেটিং সিস্টেমের তুলনা করে দেখাবে। কোনটি ভালো কিংবা কোনটি খারাপ এই বিষয়ে বিভিন্ন আর্টিকেলগুলো সামনে নিয়ে আসবে।

👉 জিমেইলে অটো রিপ্লাই ইমেইল সেট করার নিয়ম

নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে লেখা আর্টিকেল খুঁজে পাওয়া

অনেক সময় নির্দিষ্ট সময়ের আগে বা পরে বিভিন্ন আর্টিকেল বা সার্চ রেজাল্ট খুঁজে পাওয়ার দরকার পরে। এক্ষেত্রেও গুগল সার্চের নির্দিষ্ট কিছু ট্রিক রয়েছে। সার্চ বক্সে সার্চ টার্মের সঙ্গে ‘AFTER:’ অথবা ‘BEFORE:’ যুক্ত করে দিলে নির্দিষ্ট সময়ের আগে বা পরে সার্চ রেজাল্ট দেখাবে গুগল।

যেমন: ‘How to earn money online AFTER: 2022’ লিখে সার্চ করলে ২০২২ সালের পর এই সংক্রান্ত যত আর্টিকেল লেখা হয়েছে বা সার্চ রেজাল্ট রয়েছে শুধু সেগুলোই দেখাবে গুগল। একইভাবে ‘BEFORE:‘ ব্যবহারে উল্লেখিত সময়ের আগের সকল সার্চ রেজাল্ট সামনে নিয়ে আসবে গুগল।

নাম্বার রেঞ্জ দিয়ে সার্চ

অনেক সময় বিভিন্ন তারিখ বা নম্বরের মধ্যে সার্চের ফলাফল দরকার হতে পারে। একটি নির্দিষ্ট মূল্যের মধ্যে পণ্য খোঁজার দরকার হতে পারে অনেক সময়। এসব ক্ষেত্রে আছে গুগলের রেঞ্জ সার্চ। রেঞ্জ সার্চের জন্য নম্বরের মাঝে আপনাকে ‘..’ ব্যবহার করতে হবে।

যেমন ধরুন আপনি ২০০০ সাল থেকে ২০১০ সালের মধ্যে কে কে ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডকাপ জিতেছে জানতে চান, এর বাইরে আপনার জানবার প্রয়োজন নেই। এরকম অবস্থায় আপনি এভাবে সার্চ করতে পারেন, ‘Who won the cricket world cup 2000..2010?’। এভাবে সার্চ করলে গুগল আপনাকে শুধু এই নির্দিষ্ট বছরের মধ্যে ওয়ার্ল্ড কাপ জেতা দলগুলোর নামই দেখাবে।

👉 ভ্রমণের সময় গুগল ম্যাপের এই সুবিধাগুলো অবশ্যই ব্যবহার করুন

অন্যান্য সার্চ ট্রিকস

এছাড়াও গুগলের মাধ্যমে সার্চ করার আরও অনেক ছোটখাটো হাজারো ট্রিকস রয়েছে। এমন আরও কিছু ট্রিকস বলে দেয়া হল সংক্ষেপেঃ

  • যে কোন টার্মের সংজ্ঞা কিংবা শব্দের আভিধানিক অর্থ জেনে নিতে আপনি এভাবে সার্চ করতে পারেনঃ Define: *word* । এখানে word এর স্থানে যে কোন শব্দ বসিয়ে দিলে গুগল সেটির সংজ্ঞাসহ আপনাকে আভিধানিক অর্থ দেখাবে উচ্চারণসহ।
  • যে কোন নির্দিষ্ট স্থানের আবহাওয়ার তথ্য জানতে সেই স্থানের পোস্ট কোড বা জিপ কোড লিখে সার্চ করতে পারেন। যেমনঃ Weather *zip code*
  • যে কোন স্থানের স্থানীয় সময় জেনে নিতে আপনি সে স্থানের নাম লিখে সার্চ করতে পারেন। যেমনঃ Time *place*
  • যে কোন ধরণের মাপের কনভার্সন সহজেই করে ফেলতে পারে গুগল। যেমনঃ মাইল হতে কিলোমিটারে আনতে গুগলে সার্চ করতে পারেনঃ ‘10 miles to km’ এভাবে। এছাড়াও এরকম কনভার্সন আপনি বিভিন্ন মুদ্রার ক্ষেত্রেও করে ফেলতে পারেন। যেমনঃ ‘10 USD to taka’
  • বিভিন্ন ফ্লাইটের তথ্য আপনি গুগল থেকেই সহজে দেখতে পারেন। এজন্য ‘Dhaka to Dubai flight’ এভাবে সার্চ করলেই ফ্লাইটের তথ্য আপনার সামনে চলে আসবে। এছাড়া গুগলে লগ ইন থাকলে ‘my flight status’ লিখে সার্চ করলে গুগল আপনার বোর্ডিং পাশের তথ্য থেকেই আপনার ফ্লাইটের সমস্ত কিছু আপনার সামনে নিয়ে আসতে পারে।
  • আপনি অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারী হলে এবং গুগলে লগ ইন থাকলে ‘find my phone’ লিখে সার্চ করলে সরাসরি আপনার ফোনের লোকেশন ট্র্যাক করে দেখাবে গুগল। নিজের ফোন খুঁজে পাওয়ার দ্রুততম মাধ্যম এটি।
  • আপনি গুগলের মাধ্যমেই চাইলে টাইমার সেট করতে পারেন। এজন্য সার্চ বক্সে টাইপ করতে হবে ‘set timer’ বা ‘timer’ শব্দটি।

এরকম আরও অসংখ্য গুগল সার্চ ট্রিকস রয়েছে যা আপনার জীবনকে আরও সহজ ও সুন্দর বানিয়ে দিতে পারে। সুতরাং দৈনন্দিন সার্চ বা রিসার্চের কাজে এই সার্চ ট্রিকসের ব্যবহার করতে পারেন আপনি।

আশা করি গুগলে দ্রুত ও সঠিক তথ্য খুঁজে পেতে টিপসগুলো আপনাদের সাহায্য করবে। আপনার জানা টিপস ও ট্রিকস শেয়ার করতে চাইলে কমেন্টে জানানোর অনুরোধ রইল।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,558 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *