মস্তিষ্ক নিয়ন্ত্রিত ডিভাইস তৈরির ওপর কাজ করছে স্যামসাং

samsung.mind_.controlদক্ষিণ কোরীয় প্রযুক্তি কোম্পানি স্যামসাংয়ের ইমার্জিং টেকনোলজি ল্যাব টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষকের সাথে মানুষের চিন্তাভাবনা দ্বারা নিয়ন্ত্রণযোগ্য ইলেকট্রনিক ডিভাইস তৈরির ওপর কাজ করছে। বর্তমানে তারা ইইজি (ইলেক্ট্রোএন্সিফ্যালোগ্রাফি) ক্যাপের সাহায্যে ব্রেইন সিগন্যাল সংগ্রহ করে সেগুলোর অনুবাদের মাধ্যমে ট্যাবলেট কম্পিউটার পরিচালনা নিয়ে গবেষণা চালাচ্ছে। এক্ষেত্রে একটি স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ১০.১ এ চিন্তাশক্তি দ্বারা এপ্লিকেশন চালু করা, কন্টাক্ট বা গান নির্বাচন করা, ডিভাইসটি চালু/বন্ধ করা প্রভৃতির পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে।

সারাক্ষণ সেন্সরযুক্ত ক্যাপ পরে “ব্রেইন-কন্ট্রোল” ব্যবহার করাটা কি আরামদায়ক হবে?

এমআইটি টেকনোলজি রিভিউ বলছে, এখনই ব্রেইন কন্ট্রোলড ফোন তৈরি করার কোন পরিকল্পনা স্যামসাংয়ের নেই। তারা গবেষণাটির একদম তৃনমূল পর্যায়ে আছে, যেখানে ইইজি মনিটরিং ইলেকট্রোড যুক্ত বিশেষ ধরণের ক্যাপ ব্যবহৃত হচ্ছে। এটি একটি মস্তিষ্ক নিয়ন্ত্রিত কম্পিউটার ইন্টারফেসের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়। এক্ষেত্রে গবেষকরা বহুল পরিচিত “ব্রেইন এক্টিভিটি প্যাটার্ন” এবং “সিগন্যাল প্রসেসিং মেথড” উন্নয়নের দিকে নজর রাখছেন যাতে ব্রেইনওয়েভকে সঠিকভাবে প্রক্রিয়াজাত করে ডিভাইসগুলো নিয়ন্ত্রণে কাজে লাগানো যায়।

স্যামসাং গবেষক ইনসু কিম বলেন, ব্রেইন কম্পিউটার ইন্টারফেসকে স্মার্টফোন বা এ ধরণের ডিভাইসের সাথে প্রতিক্রিয়াশীল করে তুলতে এখনও অনেক গবেষণা প্রয়োজন। এক্ষেত্রে বেশ কয়েকটি চ্যালেঞ্জের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে দুর্বল ইইজি সিগন্যালগুলোকে ইলেকট্রনিক ডিভাইসে ব্যবহারোপযোগী করে তোলা এবং ব্যবহারবান্ধব ব্রেইনওয়েভ সংগ্রহাক তৈরি করা।

স্যামসাংয়ের বর্তমান গবেষণা অনুযায়ী প্রযুক্তিটি ব্যাবহারকারীকে একটি ইইজি ক্যাপ পরিধান করতে হয়, যা নিত্যনৈমিত্তিক জীবনযাপনের সাথে মানানসই না। সুতরাং একে বাস্তবে রূপ দিতে চাইলে পুরো পদ্ধতিটিই আরও সহজ করে তোলা বাঞ্ছনীয়।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 4,949 other subscribers

Comments