গ্যালাক্সি এস ৪ আই ট্র্যাকিং ফিচার পেটেন্ট নিয়ে মতানৈক্যে স্যামসাং এবং এলজি

gs4স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৪ ঘোষণার বেশ কয়েকদিন কেটে গেলেও কিছু বিষয়ে আলোচনা-সমালচনা ব্যতীত তেমন কোন বড় ধরণের অভিযোগ আসেনি। অ্যাপল এবং ব্ল্যাকবেরি যদিও এর অপারেটিং সিস্টেম এবং ডিজাইন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল, কিন্তু বরাবরের মত “পেটেন্ট লঙ্ঘন” সম্পর্কিত হুমকি দেয়নি কোন কোম্পানি। কিন্তু স্যামসাংয়ের এই স্বস্তিটুকু যেন সহ্য করতে পারেনি এলজি। গ্যালাক্সি নির্মাতার স্বদেশী কোম্পানিটি তাদের বিরুদ্ধে অপটিমাস প্রো’র আই ট্র্যাকিং ফিচারগুলো কপি করার সন্দেহ প্রকাশ করছে

স্যামসাং জিএস ফোরে আই ট্র্যাকিং ফিচার ব্যবহার করে স্মার্ট স্ক্রল এবং স্মার্ট পস সুবিধা পাওয়া যাবে। এক্ষেত্রে ডিভাইসটির ফ্রন্ট ক্যামেরা সেন্সরের মাধ্যমে ব্যবহারকারীর চোখের গতিবিধি অনুযায়ী কনটেন্ট ব্রাউজিং এবং ভিডিও চালু/ বন্ধ করতে পারে।

অপরদিকে এলজি অপটিমাস জি প্রো’তেও স্মার্ট ভিডিও নামক আই ট্র্যাকিং ফিচার আছে যার পেটেন্ট আবেদন ফাইল করা হয় ২০০৯ সালে। এ সঙ্ক্রান্ত আরও কিছু প্রযুক্তির মেধাস্বত্ব চেয়ে ২০০৫ সালেও যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করে উক্ত প্রতিষ্ঠান। আর স্যামসাংয়ের বিরুদ্ধে এগুলো নকলের অভিযোগ এনেছে এলজি।

এমতাবস্থায় উক্ত দাবি অস্বীকার করেছে গ্যালাক্সি ডিভাইস প্রস্তুতকারী স্যামসাং। জনপ্রিয় এই কোম্পানি তাদের নিজস্ব পদ্ধতিতে আই ট্র্যাকিং ফিচার প্রয়োগ করেছে বলে জানিয়েছে।

শুধুমাত্র স্মার্টফোনের ক্ষেত্রেই নয়- স্যামসাং এবং এলজি’র মধ্যে টেলিভিশন ও ডিসপ্লে পেটেন্ট নিয়েও ইতোমধ্যেই আইনী লড়াইয়ের সূত্রপাত হয়েছে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 3,440 other subscribers

Comments