ক্রিকেটে ৩ মোড়লের প্রস্তাব পাশ করল আইসিসি

iccইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) বোর্ড অবশেষে ‘তিন মোড়লের’ ‘বিতর্কিত’ প্রস্তাব পাশ করল। এর ফলে সংস্থাটির গঠন ও কার্যক্রমের ক্ষমতা চলে যাবে ভারত, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার হাতে। সিংগাপুরে অনুষ্ঠিত এক মিটিংয়ে প্যাকেজ রেস্যুলেশনটি পাশ করা হয়।

আজ শনিবার আইসিসির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সিঙ্গাপুরে সংস্থাটির সভায় ১০ স্থায়ী দেশের মধ্যে বাংলাদেশসহ মোট আটটি দেশ ‘বিগ থ্রি’ ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের আনীত প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছে। শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান বোর্ড ভোটদান থেকে বিরত ছিল।

এর অধীনে ৫ সদস্যের এক্সিকিউটিভ কাউন্সিল গঠিত হবে যার আসন ভারত, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার জন্য সংরক্ষিত থাকবে।

চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি এন শ্রিনিবাসন আইসিসি বোর্ডের সর্বোচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন চেয়ারম্যানের পদে বসবেন।

ভারতীয় বোর্ড অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডকে সাথে নিয়ে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির পরিচালনা পদ্ধতি পাল্টে ফেলার খসড়া প্রস্তাব আনার পর থেকেই এটি নিয়ে প্রবল আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছিল। এরপর খসড়া প্রস্তাবে থাকা দুই স্তরের টেস্ট ফরম্যাট থেকে সরে আসার পর বাংলাদেশ এতে সমর্থন দেয়।

আইসিসির রাজস্বের বেশিরভাগ অংশ এই তিন দেশ পাবে। তবে অন্য সাতটি স্থায়ী সদস্য টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলোর জন্যও থাকছে ‘টেস্ট ক্রিকেট ফান্ড’।

আইসিসির সহযোগী দেশগুলোর সামনেও টেস্ট খেলার সুযোগ আসছে। দশটি টেস্ট খেলুড়ে দেশের বাইরে অন্য দলগুলো নিয়ে অনুষ্ঠিত আইসিসি ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপের বিজয়ী দল টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের শেষে থাকা দলের সাথে প্লে-অফ খেলার সুযোগ পাবে। এই প্লে-অফ ম্যাচে জিতলে নতুন দেশটি টেস্ট স্ট্যাটাস পাবে।

প্রস্তাবিত বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ আর হচ্ছে না। এর স্থলে ২০১৭ ও ২০২১ সালে হবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি যা আবারও প্রতিটি আইসিসি সদস্যের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। গত দুইটি চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে আইসিসির ওয়ানডে র‍্যাংঙ্কিংয়ে থাকা প্রথম ৮টি দেশ খেলার সুযোগ পেয়েছিল।

২০২৩ সাল পর্যন্ত প্রতিটি টেস্ট খেলুড়ে দেশের ঘরের মাঠে যথেষ্ট পরিমাণে সিরিজ খেলাও নিশ্চিত করা হবে বলে আইসিসির প্রেস রিলিজে জানান হয়েছে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 3,716 other subscribers

Comments