ভিসা ছাড়া বিদেশ ভ্রমণ করতে চান? তাহলে আপনার জন্যই ‘ভিসাম্যাপার’!

visamapperআপনি যদি নিত্য নতুন স্থানে ভ্রমণে আগ্রহী হয়ে থাকেন তাহলে দেশের বাইরে ঘুরতে যাওয়ার ব্যাপারটি আপনার জন্য অবশ্যই আনন্দদায়ক এক অভিজ্ঞতা। কিন্তু দেশের মধ্যে যেভাবে হুটহাট টিকেট কেটেই ভ্রমণ করা যায়, দেশের বাইরে ট্র্যাভেল করতে যাওয়া এতটা সহজ না। এজন্য পাসপোর্ট, ভিসা, টিকেট প্রভৃতি আনুষ্ঠানিকতার দরকার হয়, যা কোন কোন ক্ষেত্রে বেশ সময় সাপেক্ষ।

কিন্তু, যদি ভিসা ছাড়াই বিদেশ ভ্রমণ করা যায় তাহলে কেমন লাগে? নিশ্চয়ই ভাল হবে? বিশ্বের কিছু কিছু দেশ ভিসা ছাড়াই ট্যুরিস্ট অ্যাক্সেপ্ট করে থাকে। বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের জন্য এই সুবিধা আলাদা আলাদাভাবেও নির্ধারিত হতে পারে।

কিন্তু কোন দেশ কখন ভিসা ছাড়া প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে সেটি মুখস্থ রাখা ঝামেলার কাজ। এটি সহজ করে দিতেই এলো ভিসাম্যাপার ডটকম। এই ওয়েবসাইটটির ম্যাপ ভিত্তিক ইন্টারফেস নাগরিকত্ব অনুসারে আপনাকে বিশ্বের যেকোনো দেশের ভিসা রিকোয়্যারমেন্ট সম্পর্কে ভিজ্যুয়াল ধারণা দেবে।

সাইটটি ভিজিট করলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার দেশ নির্বাচিত হবে। এছাড়া আপনি চাইলে ড্রপডাউন মেন্যু থেকে ভ্রমণকারীর স্বদেশ বাছাই করতে পারবেন। নিজের দেশ নির্বাচনের পর স্ক্রিনে বিশ্বের মানচিত্র ভেসে উঠবে। সেখানে বিভিন্ন দেশের ম্যাপে আলাদা আলাদা রঙ হাইলাইট হবে যা থেকে বুঝতে পারবেন কোথায় ভিসা দরকার।

মেরুন রঙ চিহ্নিত দেশে আগে থেকেই ভিসা দরকার হবে। হালকা সবুজ রঙের দেশগুলোতে ভ্রমণের আগে ভিসা প্রয়োজন হবেনা। গাঢ় সবুজ রঙের দেশে প্রথমে ল্যান্ড করে তারপর ভিসা নিতে পারবেন। সাদা চিহ্নিত দেশগুলোর ক্ষেত্রে শুধু অনলাইন অ্যাপ্রুভালই যথেষ্ট। যে দেশের মানচিত্রে গাঢ় নীল রঙ দেখবেন সেটি হচ্ছে আপনার নিজের দেশ। লাল রঙের দেশে আপনার দেশ থেকে ভ্রমণকারী যাওয়ার ভিসা বন্ধ/রেস্ট্রিক্টেড/ফরবিডেন। আর যদি কালো রঙের ম্যাপ দেখেন তাহলে বুঝবেন পর্যাপ্ত তথ্য উওলভ্য নয়।

অনলাইনে ভিসাম্যাপারে চেক করার পর অবশ্যই তথ্যগুলো সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে যাচাই করে ভ্রমণের প্রস্তুতি নিবেন। আপনার যাত্রা শুভ হোক।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,572 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *