মানবদেহে সংস্থাপিত হল কৃত্রিম হৃদপিণ্ড!

carmat-heart-component...  ....ফ্রান্সের একদল চিকিৎসক সম্প্রতি একজন মানুষের শরীরে কারম্যাট কৃত্রিম হৃদপিণ্ড সংস্থাপনে সফল হয়েছেন। শুনে হয়ত কিছুটা অবাকই হবেন, এই আর্টিফিসিয়াল ‘বায়োনিক’ হৃদযন্ত্রের আংশিক তৈরি হয়েছে মেকানিক্যাল পার্টস দ্বারা ও সিনথেটিকের স্থলে এর বাকী অংশে ব্যবহৃত প্রাণীজ টিস্যু নেয়া হয়েছে গরুর হৃদপেশী থেকে। মানবদেহে দীর্ঘমেয়াদে ব্যবহারের উদ্দেশ্যে তৈরি এটিই হচ্ছে প্রথম কৃত্রিম হার্ট। কারম্যাট কোম্পানির গবেষণাগারে উন্নয়নকৃত এই ডিভাইসটি পাঁচ বছর পর্যন্ত ব্যবহার করা যাবে।

ফ্রান্সের জর্জেস পমপেইদু ইউরোপিয়ান হসপিটালে উক্ত অপারেশনটি সম্পন্ন হয়েছে। কারম্যাট বলেছে, অস্ত্রোপচার ভালোভাবেই পরিচালিত হয়েছে এবং রক্ত সঞ্চালনের ক্ষেত্রেও এটি আশানুরূপ ফলাফল দিচ্ছে। প্যারিসে অবস্থানরত ঐ রোগী জেগে আছেন এবং কথাবার্তা বলতে পারছেন। তাকে নিবিড় তত্বাবধানে রাখা হয়েছে।

রোগাক্রান্ত হৃদযন্ত্রের কার্যক্রম সচল রাখতে সচরাচর যেসব মেডিক্যাল ইমপ্ল্যান্ট বা ডিভাইস ব্যবহৃত হয় সেগুলো সাধারণত স্বল্পকালীন সময়ের জন্য কাজ করে। কিন্তু কারম্যাটের বায়োপ্রসথেটিক হার্ট অনেকটা প্রাকৃতিক হৃদপেশীর মতই আচরণ করবে এবং বহুদিন চলবে।

অবশ্য, কারম্যাট হার্টেরও কিছু সীমাবদ্ধতা রয়ে গেছে। এর ওজন প্রায় ৯০০ গ্রাম, যা একজন স্বাভাবিক স্বাস্থ্য বিশিষ্ট মানুষের রক্তমাংসে গড়া হৃদপিণ্ডের ভরের প্রায় তিন গুণ! আর, ডিভাইসটি সংস্থাপন করতে চাইলে সেবাগ্রহীতার ২ লাখ মার্কিন ডলারের বেশি খরচ পড়বে। যাইহোক, সময়ের সাথে এর সীমাবদ্ধতা কমে আসবে বলেই আশা করা হচ্ছে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 5,038 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.