স্মার্টফোন দিয়ে ডকুমেন্ট স্ক্যান করুন সহজেই

স্মার্টফোনের আবির্ভাব হবার সাথে সাথে স্ক্যানারের ব্যবহার অনেক কমে এসেছে। স্ক্যানার আপনার ডকুমেন্টগুলোর ডিজিটাল কপি তৈরি করে দিতে পারে। তবে এই কাজটি মোবাইল ক্যামেরার অভূতপূর্ব উন্নতির সাথে সাথে ফোনের ক্যামেরা দিয়েই আজকাল করে ফেলা যাচ্ছে। তাই স্ক্যানার কেনা বা দোকানে গিয়ে আপনার প্রয়োজনীয় ফাইল অর্থ খরচ করে স্ক্যান করার প্রয়োজন আর তেমন নেই। আপনার হাতে যদি একটি স্মার্টফোন থাকে এবং সেই স্মার্টফোনে যদি একটি মোটামুটি মানের ক্যামেরা থাকে তবে সহজেই আপনি খুব ভালো কোয়ালিটির স্ক্যান করে ফেলতে পারবেন বিভিন্ন অ্যাপের সাহায্য নিয়ে।

যদি আপনি গুগল প্লেস্টোর বা অ্যাপল অ্যাপ স্টোরে সার্চ দিয়ে থাকেন তবে অসংখ্য স্ক্যানার অ্যাপ পেয়ে যাবেন। তবে সব অ্যাপই যে ঝক্কি ঝামেলাবিহীন এমনটি নয়। কিছু কিছু অ্যাপের ইউজার ইন্টারফেস খুব একটা ভাল না। এছাড়াও কোয়ালিটির দিক থেকেও অনেক অ্যাপ খুব একটা সন্তোষজনক নয়। এই পোস্টে আজ আমরা কথা বলবো বাছাইকৃত কিছু ফ্রি স্ক্যানার অ্যাপ নিয়ে যেগুলো খুব ভালো ডিজিটাল কপি করে দেবে আপনার ডকুমেন্টের।

আপনি যদি অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারী হন তবে গুগল ড্রাইভ অ্যাপ হতেই ফ্রিতে স্ক্যান করতে পারবেন। আইফোনে এই একই সুবিধা পাবেন আইফোনের নোটস অ্যাপ হতে। এছাড়া আরও অনেক থার্ড পার্টি ভালো ফিচারযুক্ত অ্যাপ আছে। যেমনঃ মাইক্রোসফট লেন্স, অ্যাডোব স্ক্যান, ক্যামস্ক্যানার ইত্যাদি।

গুগল ড্রাইভ

অনেকেই গুগল ড্রাইভ অ্যাপে থাকা স্ক্যানিং ফিচার নিয়ে অবগত নন। এই ফিচারটি অ্যাপে বেশ লুকানো অবস্থাতেই রয়ে গেছে। তবে এটি অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সবথেকে সহজ ও ফ্রি স্ক্যানিং টুল। এতে বাড়তি কোন জটিলতা নেই, শুধু গুগলের দেয়া ডিফল্ট স্ক্যানিং ফিল্টার আছে যার মাধ্যমে ছবি তুললেই ভালোভাবে পড়ার যোগ্য একটি ডিজিটাল কপি হয়ে যাবে আপনার ডকুমেন্টের। নিচের নির্দেশনা অনুযায়ী স্ক্যান অপশনটি ব্যবহার করতে পারেন এই অ্যাপেরঃ

  • ফোন হতে গুগল ড্রাইভ অ্যাপটি ওপেন করুন।
  • স্ক্রিনের নিচের দিকে ডান পাশের কোনায় + অপশনটি চাপ দিন।
  • স্ক্যান অপশনটি সিলেক্ট করুন।
  • আপনার ডকুমেন্টের একটি ছবি তুলুন।
  • ছবি তোলার পর ডকুমেন্টের কোনো অংশ বাদ দিতে চাইলে ক্রপ অপশনের মাধ্যমে বাদ দিয়ে দিন। যদি ছবিটি পছন্দ না হয় তবে রিস্ক্যান অপশন সিলেক্ট করে আবার তুলতে পারেন। পরবর্তী পেজের ছবি তুলতে চাইলে Scan another page অপশন হতে + এ ট্যাপ করতে পারেন।
  • এই ছবি বা ডকুমেন্টের নিজস্ব নাম দিয়ে দিতে পারেন। এরপর সব ঠিকঠাক মনে হলে সেভ অপশন হতে সেভ করে রাখতে পারেন।
গুগল ড্রাইভ

এই স্ক্যানিং অপশনটি অনেক বেশি ব্যবহার করতে চাইলে আপনার হোমপেজে একটি শর্টকাটও তৈরি করে রাখতে পারেন। উইজেট অপশন হতে ‘ড্রাইভ স্ক্যান’ উইজেটটি দিয়ে এটি করতে পারেন। গুগল ড্রাইভ অ্যাপটি বেশীরভাগ ফোনে প্রথম থেকেই ইন্সটল করা থাকে। তবে প্লেস্টোর হতেও ইন্সটল করে নিতে পারেন এই লিঙ্ক হতে

মাইক্রোসফট লেন্স

মাইক্রোসফটের পক্ষ থেকে ফ্রি স্ক্যানার অ্যাপ এটি। প্লেস্টোর হতে সহজেই অ্যাপটি ইন্সটল করে নিতে পারেন। এতে ডকুমেন্ট স্ক্যান করা ছাড়াও আরও বেশ কিছু বাড়তি ফিচার আছে যার মধ্যে হাতের লেখাকে টেক্সটে রুপান্তর, বা যেকোনো লেখাকে মোবাইলের মাধ্যমে পড়া, বিভিন্ন টেবিল হতে ডাটা ক্যাপচার করা, কিউআর কোড স্ক্যান করা ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

ডকুমেন্ট স্ক্যান করতে নিচের নির্দেশনা দেখে নিতে পারেনঃ

  • অ্যাপটি ওপেন করুন।
  • ক্যামেরা দেখতে পাবেন। ক্যামেরার নিচে ক্যাপচার করার স্থানে বামদিকে সোয়াইপ করলে বিভিন্ন অপশন পাবেন। ডকুমেন্ট অপশন পেতে হলে একবার বামদিকে আপনাকে সোয়াইপ করতে হবে।
  • এরপর ছবিটি তুলে ফেলুন আপনার ডকুমেন্টের।
  • ছবি উঠে গেলে আপনাকে আরও পেজ অ্যাড, ক্রপ, রোটেট ইত্যাদি বিভিন্ন অপশন দেখাবে যেখান থেকে ছবিটি নিজের ইচ্ছামতো এডিট করে নিতে পারবেন।
  • সবকিছু ঠিক হলে ছবিটি সেভ করতে পারবেন। চাইলে বিভিন্ন মাধ্যমে ডকুমেন্টটি শেয়ারও করতে পারবেন এখান থেকেই।
মাইক্রোসফট লেন্স

এই অ্যাপ হতে আগে স্ক্যান করা ডকুমেন্ট যখন ইচ্ছা ইডিট করতে পারবেন। এই অ্যাপ আপনাকে আরেকটু বেশি সুবিধা দিতে পারবে। প্লেস্টোর হতে অ্যাপটি ইন্সটল করে নিতে পারেন এই লিংক থেকে। এছাড়া অ্যাপ স্টোর থেকে আইফোনের জন্যও পেতে পারেন এই অ্যাপ।

অ্যাডোবি স্ক্যান

বিখ্যাত সফটওয়্যার কোম্পানি অ্যাডোবির তৈরি এই অ্যাপ। তাদের ছবি ও ফিল্টারের জনপ্রিয়তা অনেক বছর ধরে। তাদের এই অ্যাপটিও অনেক ধরনের ইউনিক ফিচার দিচ্ছে সম্পূর্ণ ফ্রিতেই। এই অ্যাপ ব্যবহার করতে আপনার একটি অ্যাডোবি অ্যাকাউন্ট প্রয়োজন হবে। একবার লগিন করে নিলেই অ্যাপ দিয়ে স্ক্যান শুরু করতে পারবেন।

মাইক্রোসফট লেন্স অ্যাপের মতোই অ্যাপে ঢুকলেই আপনার সামনে একটি ক্যামেরা দেখতে পাবেন। ক্যামেরার নিচে ক্যাপচার করার স্থানে বামদিকে সোয়াইপ করলে বিভিন্ন অপশন পাবেন। এখান থেকে ডকুমেন্ট অপশন সিলেক্ট করে দিলে ক্যামেরাটি একাই ডকুমেন্ট ফাইল সার্চ করতে থাকবে ফ্রেমের মধ্যে। আপনার ডকুমেন্ট ফাইলের চার কোণা পেয়ে গেলেই এই অ্যাপটি একাই ছবি উঠিয়ে নেবে। আপনাকে কিছুই করতে হবে না।

ডকুমেন্ট ফাইলটি এরপর আপনার সামনে চলে আসবে স্ক্রিনে। আপনি চাইলে সেখান থেকে বিভিন্ন কিছু নিজের ইচ্ছামতো ইডিট করে নিতে পারবেন। করতে পারবেন ক্রপ, রোটেট, রিসাইজ। এখান থেকেই নতুন পছন্দমতো ফিল্টার, বা নতুন পেজ অ্যাড করে নিতে পারবেন সহজেই। এই অ্যাপটি বেশ সুন্দর এবং এতে অনেক অ্যাডভান্সড কিছু ফিচার রয়েছে। চাইলে অ্যাডোবির ক্লাউডে আপনার স্ক্যানগুলো সেভ করেও রাখতে পারেন। তবে স্টোরেজ বাড়াতে চাইলে অ্যাডোবির সাবসক্রিপশন নেয়ার দরকার হবে। 

অ্যাডোবি স্ক্যান

আপনি যদি নিয়মিত স্ক্যান করে থাকেন এবং আপনাকে অনেক বড় ডকুমেন্ট বা বই স্ক্যান করতে হয় নিয়মিত, এই অ্যাপটি আপনার প্রথম পছন্দ হতে পারে এর ভালো কিছু ফিচারের জন্য। প্লেস্টোর হতে অ্যাপটি এই লিঙ্ক হতে ইন্সটল করে নিতে পারেন। আইফোনের জন্য অ্যাপটি চাইলে এই লিংক দেখুন।

ক্যামস্ক্যানার

ক্যামস্ক্যানার অ্যাপটি সবথেকে পরিচিত এবং পুরনো স্ক্যানার অ্যাপ। এই অ্যাপে বেশ কিছু অসাধারন ফিচার রয়েছে স্ক্যানিংয়ের জন্য যা এই অ্যাপকে অন্যান্য স্ক্যানিং অ্যাপ হতে আলাদা করেছে। যদি আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেইল থাকে তাহলে এই অ্যাপের প্রিমিয়াম ফিচারগুলো ফ্রিতেই ব্যবহার করতে পারবেন। অ্যাপের ইন্টারফেস বেশ সুন্দর ও সহজ। অ্যাপ ওপেন করলেই আপনি স্ক্যানিং শুরু করে দিতে পারবেন।

এই অ্যাপটিও অ্যাডোবি স্ক্যানের মতোই আপনার ডকুমেন্ট ডিটেক্ট করে অপ্রয়োজনীয় অংশ কেটে দিতে পারে, এমনকি আপনার ডকুমেন্ট বাঁকাভাবে থাকলে একাই সোজা করে নিতে পারে অ্যাপটি। এতে ওসিআর ফিচার আছে যা আপনার ডকুমেন্টকে টেক্সট ফাইলেও কনভার্ট করে দিতে পারবে। এছাড়া বিভিন্ন ফিল্টার আছে যা আপনার স্ক্যান করা ডকুমেন্টকে আরও বেশি সুন্দর ও পড়বার যোগ্য করে তুলতে পারে।

ক্যামস্ক্যানার

তবে ফ্রি ভার্সনের ডকুমেন্টগুলোতে ক্যামস্ক্যানার নিজেদের নাম ওয়াটারমার্ক হিসেবে লাগিয়ে দেয়। তাই ফরম্যাল বা অফিসিয়াল ভাবে ডকুমেন্ট ব্যবহারে এর ফ্রি ভার্সন ব্যবহার না করাই ভালো। বিভিন্ন ফরম্যাটে আপনি আপনার ডকুমেন্ট সেভ করতে পারবেন। চাইলে শেয়ার এবং ক্যামস্ক্যানারের নিজস্ব স্টোরেজে সেভ করেও রাখতে পারেন। 

যদি প্রিমিয়াম ভার্সন ব্যবহার করতে পারেন তবে এটি সেরা একটি অ্যাপ হতে পারে আপনার জন্য। ফ্রি ভার্সনে ওয়াটারমার্ক থাকায় অফিসিয়াল কাজের জন্য পোস্টে উল্লেখ করা অন্য কোনো অ্যাপ ব্যবহার করাই ভালো। প্লে স্টোর থেকে অ্যাপটি ইন্সটল করে নিতে চাইলে এই লিংক ভিজিট করতে পারেন। আইফোনের জন্য এখানে দেখুন।

আপনি যদি আইফোন ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তবে চাইলে নোটস নামের অ্যাপ হতে ফ্রিতেই স্ক্যানিং অপশন পেতে পারেন। নাহলে উপরের অ্যাপগুলো আইফোনের অ্যাপস্টোর হতে ইন্সটল করে নিতে পারেন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,832 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.