রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন – যে কারণে সবাই এটা নিয়ে মাতামাতি করছে

রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন

রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন ফোনটি নিয়ে দেশের বাজারে বেশ মাতামাতি হচ্ছে। দেশের বাজারে অফিসিয়ালি না আসলেও আনঅফিসিয়ালি মাত্র ২৩হাজার টাকা দামে পাওয়া যাচ্ছে ফোনটি। বলা হচ্ছে ২৫হাজার টাকার মধ্যে বর্তমানে এর চেয়ে ভালো কোনো ডিল বাজারে নেই। এই পোস্টে আমরা জানার চেষ্টা করবো রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন ফোনটি আসলে কতটুকু এই দাবির যোগ্য।

ডিজাইন ও ডিসপ্লে

এক দেখায় যে কারো পছন্দ হতে বাধ্য রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন। বেশ সাধারণ দেখতে এই ফোনের ডিজাইন আহামরি না হলেও খুব বাজেও নয়। পলিকার্বনেট ব্যাকের ফোনটির ওজন ২০০গ্রামের আশেপাশে হলেও তেমন একটা ভারি লাগেনা। এই দামে অন্য ব্রান্ডের ফোনের সাথে তুলনা করলে এই ডিজাইন তেমন একটা আকর্ষণীয় মনে না হতে পারে, তবে মনে রাখা ভালো এই ফোনের আকর্ষণ কিন্তু এর ডিজাইন নয়।

এবার আসি রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন এর ডিসপ্লে সেকশনে। রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন ফোনটিতে ৬.৬ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে রয়েছে। আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে দেখে নাক ছিটকানোর কোনো কারণ নেই, কেননা এখানে মূল আকর্ষণ হলো ১৪৪ হার্জ রিফ্রেশ রেট। হ্যাঁ, ঠিক শুনেছেন! ২৫হাজার টাকা বাজেটের একটি ফোনে রয়েছে ১৪৪ হার্জ রিফ্রেশ রেট, এবার নিশ্চয় বুঝতে পারছেন এটি একটি গেমিং সেন্ট্রিক ফোন।

পারফরম্যান্স

রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন ফোনটির অন্যতম আকর্ষণ হলো এতে থাকা স্ন্যাপড্রাগন ৭৭৮জি চিপসেট। বাজারে চিপসেট এর শর্টেজ থাকার কারণে বর্তমানে সাশ্রয়ী দামে ভালো প্রসেসরের ফোন পাওয়া বলতে গেলে অসম্ভব হয়ে গেছে। এমন অবস্থায় রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন ফোনটি স্ন্যাপড্রাগন ৭৭৮জি প্রসেসর অফার করছে, যা এই দামে নিঃসন্দেহে সেরা ডিল।

মুলত এটি একটি ফোন, যাতে পাবজি মোবাইল, কল অফ ডিউটি মোবাইল সহ যেকোনো গেম কোনো ধরনের ল্যাগ বা ফ্রেম ড্রপ ছাড়া আরামসে খেলা যাবে। আবার ১৪৪ হার্জ রিফ্রেশ রেট থাকায় সাপোর্টেড গেমগুলোতে অসাধারণ অভিজ্ঞতা পাওয়া যাবে। 

রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন সামনের দিকে

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

ক্যামেরা

রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশনে ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপ রয়েছে। ৪৮মেগাপিক্সেল মেইন সেন্সরের পাশাপাশি এখানে ২মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো ও ডেপথ সেন্সর রয়েছে। ক্যামেরা ফিচার শুনেই হয়ত বুঝতে পারছেন এখানে ভালো চিপসেট প্রদান করতে গিয়ে স্যাক্রিফাইস করা হয়েছে ক্যামেরা ডিপার্টমেন্টে। তবে স্ন্যাপড্রাগন ৭৭৮জি প্রসেসরের কল্যাণে প্রাইমারি ক্যামেরার ছবিগুলো ভালোই আসে।

তবে এই ফোন যেহেতু গেমারগণই কিনবেন, তাই ফোনের ক্যামেরা পারফরম্যান্স মানানসই বলা চলে। তবে বাজারের অন্য ফোনের হিসাবে এখানে অন্তত আলট্রাওয়াইড ক্যামেরা প্রদান করা যেতো। রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন এর ফ্রন্টে পেয়ে যাবেন ১৬মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। প্রাইমারি ক্যামেরা দ্বারা সর্বোচ্চ ৪কে ৩০এফপিএস ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

👉 রিয়েলমি সি৩৩ এলো সুলভ দামে দুর্দান্ত ব্যাটারি নিয়ে

ব্যাটারি

রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশনে ৫০০০মিলিএম্প এর ব্যাটারি রয়েছে। ফোনের বক্সে পেয়ে যাবেন ৩০ওয়াট এর চার্জার, যা দ্বারা ফোন বেশ দ্রুত চার্জ করা যাবে। আর একবার ফোন ফুল চার্জ করলে ১৪৪ হার্জ রিফ্রেশ রেটেও ৫ঘন্টার উপরে ব্যাকাপ পাওয়া যাবে একটানা যেকোনো গেম খেললে। সাধারণ ব্যবহারে এই ব্যাটারি ৮ থেকে ১০ঘন্টা ব্যাকাপ পাওয়া যাবে।

২৩হাজার টাকা আনঅফিসিয়াল প্রাইসে পাওয়া যাবে রিয়েলমি ৯ স্পিড এডিশন। এই দামে এই ফোনটি নিঃসন্দেহে একটি অসাধারণ পছন্দ যেকোনো গেমারের জন্য। তবে যারা ফোনে খুব একটা গেম খেলেন না, তাদের এই ফোনটি কেনার বিষয়টি খুব একটা আদর্শ হবেনা।

👉 ভিডিওঃ উড়োজাহাজ নিয়ে অবিশ্বাস্য কিছু তথ্য জানুন

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,607 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.