গ্রামীণফোনের সিম বিক্রিতে আবারও নিষেধাজ্ঞা

গত জুন মাসের শেষ দিকে গ্রামীণফোনের সিম বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল বিটিআরসি (বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন)। ফলে জুন মাসের শেষ থেকেই গ্রামীণফোন নতুন সিম বিক্রি স্থগিত করে দেয়। গ্রামীণফোনের “সেবার মান সন্তোষজনক না হওয়া” সংক্রান্ত কারণে বিটিআরসি এই নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল।

এরপর প্রায় আড়াই মাস জিপি সিম বিক্রি পুরোপুরি বন্ধ ছিল। পরবর্তীতে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে গ্রামীণফোন সীমিত আকারে পুনরায় সিম বিক্রি শুরু করে। সেসময় গ্রামীণফোনের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, তারা আগে থেকে অনুমতিপ্রাপ্ত কিছু সিম বিক্রি করছিল।

গত ৬ নভেম্বর রবিবার বিটিআরসি মোবাইল নেটওয়ার্কের মান পর্যবেক্ষণের জন্য QOS বেঞ্চমার্কিং সিস্টেমের উদ্বোধন করে। বিডিনিউজ২৪ ডটকম জানাচ্ছে, সেই অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, “সেবার মান নিশ্চিত না করা পর্যন্ত গ্রামীনফোন নতুন কোনো সিম বিক্রি করতে পারবে না। তারা পুরান সিম বিক্রির সুযোগে নতুন গ্রাহক তৈরি করছিলেন। সেবার মান বাড়াতে না পারলে নতুন গ্রাহক তৈরির দরকার নেই।” অর্থাৎ সীমিত আকারে যে জিপি সিম বিক্রি শুরু হয়েছিল সেটাও এখন বন্ধ হয়ে গেল। এর ফলে এখন আর জিপি সিম কেনা যাবেনা, যতদিন সরকারি কর্তৃপক্ষ এই নিষেধাজ্ঞা তুলে না নেয়। 

বিটিআরসির ফেসবুক পেজে উক্ত ইভেন্ট লাইভ সম্প্রচার করা হয়েছে। জিপি সিম বিক্রি বন্ধ হওয়ার কারণ সম্পর্কে বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার ঐ অনুষ্ঠানে বলেন, ‘কারণটি হচ্ছে, যেদিন পদ্মা সেতু উদ্বোধন হয়, সেদিন সেখানে নেটওয়ার্ক ভালো ছিল না। প্রধানমন্ত্রী নিজেই সেটা প্রত্যক্ষ করেছেন। মন্ত্রিপরিষদ সচিব আমাদের সচিবকে ফোন করে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন। এর আগেও প্রচুর অভিযোগ ছিল এবং এখনো আছে। সেবার মান খারাপ।”

তিনি আরও বলেন, “এ ছাড়া আদালতে রিটও ছিল। এগুলো বিবেচনায় মন্ত্রী গ্রামীণফোনের নতুন সিম বিক্রি বন্ধের জন্য বলেছিলেন। এরপর সেনাবাহিনী, পুলিশের কাছ থেকে চাহিদা আসে, তারা সিম চায়। মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা আছে, নতুন সিম বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা। কিন্তু আমি তো নতুন সিম বিক্রির অনুমতি দিইনি। পুরোনো সিম দিয়েছি, রিসাইকেল করার জন্য। এই পুরোনো সিম প্রায় ১৩ লাখ তাদের কাছেই ছিল।”

গ্রামীণফোন সিম বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা

বিটিআরসি চেয়্যারমান বলেন, জুনে ঐ নিষেধাজ্ঞার পর গ্রামীণফোনের গ্রাহকসংখ্যা কমেছে ৩৪ লাখ। তবে তাদের চাহিদা আছে গ্রাহকদের মধ্যে। গত সেপ্টেম্বর মাসে বিটিআরসি গ্রামীণফোনকে যে পুরোনো সিম বিক্রির অনুমতি দিয়েছিল, সেটা ৬ নভেম্বর আবার প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানান বিটিআরসি চেয়ারম্যান।

আপনি চাইলে বিটিআরসির সেই ইভেন্টের ভিডিও এই লিংক থেকে দেখে নিতে পারেন। আপনি কি জিপি ব্যবহার করেন? গ্রামীণফোন নিয়ে আপনার অভিজ্ঞতা কমেন্টে জানান।

👉 ভিডিওঃ উড়োজাহাজ নিয়ে অবিশ্বাস্য কিছু তথ্য জানুন

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,618 other subscribers

2 comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.