হ্যাকিংয়ের শিকার হলেন স্বয়ং মিশেল ওবামা!

obama family-portraitমার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছেন। অ্যামেরিকার একটি বড় ডেটা ব্রোকারের নেটওয়ার্ক ক্র্যাক করে হ্যাকাররা মিশেলের সোশ্যাল সিক্যুরিটি নাম্বার ও আইডি ডিটেইলস চুরি করেছে বলে জানাচ্ছে বিবিসি। শুধু মিসেস ওবামাই নন, ঐ হ্যাকিংয়ে যুক্তরাষ্ট্রের আরও অনেক বিখ্যাত ব্যক্তির ব্যক্তিগত তথ্য বেহাত হয়েছে। এখন হ্যাকারদের নিকট কয়েক মিলিয়ন মার্কিন নাগরিকের সোশ্যাল সিক্যুরিটি নাম্বার ও ডেটা রেকর্ড রয়েছে।

এক্সপোজড ডট এসইউ (exposed.su) ওয়েবসাইটে অনেক আগে থেকেই সুপরিচিত অ্যামেরিকানদের সোশ্যাল সিক্যুরিটি নাম্বার ও অন্যান্য ব্যক্তিগত তথ্য পাওয়া যাচ্ছিল। এবছর মার্চ মাস থেকে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে এফবিআই।

অ্যামেরিকার বিভিন্ন ইনফো-এজেন্সির ত্রুটিপূর্ণ কম্পিউটারের জন্যই এসব সম্ভব হয়েছে

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 2,641 other subscribers

রহস্যময় এই “এক্সপোজড.এসইউ” ওয়েবসাইটটি এখন অফলাইনে নেয়া হয়েছে। এটি বিল গেটস, বিয়ন্স নয়েলস, জে-জেড, অ্যাস্টন কাটচার সহ আরও অনেকের তথ্য লিক করেছে।

এফবিআইয়ের তদন্তে জানা যায়, এক্সপোজড ডট এসইউ এসব স্পর্শকাতর তথ্য নিজে হ্যাক করেনি, বরং এসএসএনডিওবি (SSNDOB) নামক আরেকটি সাইটের নিকট থেকে কিনে নিয়েছে। SSNDOB নিজেকে প্রাইভেট ডেটা মার্কেট হিসেবে দাবী করত। এরা খুব অল্প দামে এসব তথ্য বিক্রি করত। প্রত্যেক নাগরিকের আলাদা আলাদা ডেটা রেকর্ড বিক্রি হত মাত্র ৫০ সেন্ট বা ০.৫ ডলারের বিনিময়ে!

তবে ঐ যে কথায় আছেনা, দাদার উপর দাদাগিরি- অনেকটা সেরকমই ব্যাপার ঘটেছে এসএসএনডিওবি’র সাথে। ইতোমধ্যেই অন্য কোন হ্যাকার দল SSNDOB’কে আক্রমণ করে এর ডেটাবেজ চুরি করে অতঃপর সেগুলো কপি-পেস্ট-শেয়ার করেছে।

একজন এফবিআই মুখপাত্র বলেছেন তারা বিষয়টি আরও খতিয়ে দেখছেন এবং এ ব্যাপারে আর কোন তথ্য প্রকাশ করেনি সংস্থাটি।

আমাদের ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুন!

     
প্রযুক্তির সব তথ্য জানতে ভিজিট করুন www.banglatech24.com সাইট। নতুন পোস্টের নোটিফিকেশন ইমেইলে পেতে এই লিংকে গিয়ে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Comments