মোবাইল হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার করার নিয়ম

বর্তমান সময়ের প্রত্যেকটা স্মার্টফোনেই রয়েছে মোবাইল হটস্পট সুবিধা, যা ফোনকে ওয়াই-ফাই হটস্পটে পরিণত করে। এই ফিচারটি বিশেষ মুহূর্তে দারুন কাজে আসতে পারে। এর মাধ্যমে এক মোবাইল থেকে অন্য মোবাইলে এমবি শেয়ার করা যায়। যদিও এই এমবি বা ইন্টারনেট ডেটা সরাসরি এক সিম থেকে অন্য সিমে যায়না, তবে এটি একটি ফোন থেকে ডেটা নিয়ে ওয়াইফাই প্রযুক্তির মাধ্যমে অন্যান্য ডিভাইসে ব্যবহারের পথ তৈরি করে।

ওয়াই-ফাই টেদারিং প্রযুক্তি হটস্পট নামে পরিচিত। হটস্পট ব্যবহার করে মোবাইলের ইন্টারনেট কানেকশন অন্য যেকোনো মোবাইল, ট্যাবলেট বা কম্পিউটারের সাথে শেয়ার করা যায়। এই ফিচারটি সবচেয়ে বেশি কাজে আসে কোনো স্থানে বন্ধু বা পরিবারের ঘুরতে গেলে ইন্টারনেট শেয়ারের ক্ষেত্রে।

ওয়াই-ফাই হটস্পট কি

হটস্পট হলো হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার ও ব্যাক-এন্ড নেটওয়ার্ক ডাটার একটি সংমিশ্রণ যা একটি ফোনকে/ডিভাইসকে ব্রডব্যান্ড মডেম বা রাউটারের সমতুল্য করে তুলে। সহজ কথায় বলতে গেলে ওয়াইফাই এর মাধ্যমে নিকটবতী ডিভাইসগুলোর জন্য একটি ইন্টারনেট ব্যবস্থা তৈরি করে দেয় মোবাইল হটস্পট বা ওয়াই ফাই হটস্পট।

আবার ব্লুটুথ ও ইউএসবি ক্যাবল ব্যবহার করেও মোবাইল ইন্টারনেট শেয়ার করা যায়। যদিওবা মোবাইলের ব্লুটুথ ও ইউএসবি ক্যাবল ব্যবহার করে ইন্টারনেট শেয়ার করার পদ্ধতিতে তেমন একটা জনপ্রিয় নয়।

হটস্পট কিভাবে কাজ করে

কোনো একটি ফোনকে হটস্পট হিসেবে ব্যবহার করতে উক্ত ডিভাইসটি ফোনের ডাটা/ইন্টারনেট কানেকশনকে ডাটা নেটওয়ার্ক হিসেবে বিবেচনা করে। অর্থাৎ যখন কোনো ফোনের হটস্পট শেয়ার করা হয়, তখন মোবাইলটি অনেকটা ওয়াইফাই রাউটার হিসেবে কাজ করে।

কেউ একজন হটস্পট চালু করার পর তার আশেপাশে থাকা সকল ব্যক্তি পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে তার হটস্পট নেটওয়ার্কে কানেক্ট হয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন। অবশ্য হটস্পট দেয়া ফোনটির সেটিংস থেকে পাসওয়ার্ড ছাড়াই ইন্টারনেট শেয়ার করার সুবিধাও চালু করে দেয়া যায়। তবে আপনি যদি হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার করে থাকেন, এটি নিশ্চিত করুন যে আপনার ফোনে পর্যাপ্ত পরিমাণে ইন্টারনেট ডাটা রয়েছে কিনা।

এন্ড্রয়েড ফোনে হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার করার নিয়ম

ফোনের কুইক সেটিংস ড্রয়ারে হয়ত ইতোমধ্যেই আপনি হটস্পট অপশনটি দেখেছেন। এটিতে ক্লিক করলে মুহুর্তের মধ্যেই আপনার ফোনের হটস্পট চালু হয়ে যাবে। তবে ব্যবহারের আগে গুরুত্বপূর্ণ সেটিংসমুহ ঠিক করে নেওয়া প্রয়োজন।

এন্ড্রয়েড ফোনে হটস্পট চালু করার নিয়মঃ

  • প্রথমে ফোনের মোবাইল ডাটা চালু করে নিন
  • ফোনের Settings অ্যাপে প্রবেশ করুন
  • এরপর Network & Internet বা Connection & Sharing এ ট্যাপ করুন
  • Hotspot & Tethering এ ট্যাপ করুন
  • Wifi Hotspot / Portable Hotspot এ ট্যাপ করুন
এন্ড্রয়েড মোবাইল হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার করার নিয়ম

এখন আপনি একটি সেটিংস মেন্যু দেখতে পাবেন যেখান থেকে আপনার ফোনের হটস্পট সম্পর্কিত সকল সেটিংস পরিবর্তন করতে পারবেন। এই সেটিংস পেজ থেকে  ওয়াই-ফাই চালু বা বন্ধ করার পাশাপাশি নেটওয়ার্ক এর নাম, সিকিউরিটি, পাসওয়ার্ড, ইত্যাদি পরিবর্তন করা যাবে। আপনার পছন্দমত মোবাইল হটস্পট সেট করে নিন। আপনার যদি শাওমি ফোন হয়, তাহলে সেটিংস এ প্রবেশ করলেই আপনি Portable hotspot অপশন পেতে পারেন। সেক্ষেত্রে সেখান থেকে ফিচারটি চালু করতে পারেন।

আরো জানুনঃ ফরেক্স ট্রেডিং কি ও কিভাবে কাজ করে?

স্যামসাং ফোনে হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার

স্যামসাং ফোন এর ওয়াইফাই হটস্পট সেটিংস অন্যান্য ফোন থেকে কিছুটা আলাদা এর কাস্টমাইজড ওয়ান ইউআই স্কিনের জন্য। স্যামসাং ফোনে হটস্পট সেটিংস করতেঃ

  • Settings অ্যাপে প্রবেশ করুন
  • Wireless & networks এ ট্যাপ করুন
  • Connections এ প্রবেশ করে Mobile Hotspot and Tethering এ ট্যাপ করুন
  • এরপর Mobile Hotspot পাশে থাকা সুইচটি চালু করে দিলেই আপনার স্যামসাং ফোনের হটস্পট চালু হয়ে যাবে
স্যামসাং মোবাইল হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার করার নিয়ম

আপনি চাইলে আপনার নেটওয়ার্ক এর নাম, পাসওয়ার্ড ইত্যাদি পরিবর্তন করে নিতে পারেন, যাতে অন্য কারো সাথে আপনার হটস্পট শেয়ারের সময় আপনার হটস্পট সহজেই খুঁজে পাওয়া যায় ও পাসওয়ার্ড দিয়ে কানেক্ট করা যায়।

👉 ইন্টারনেট স্পিড টেস্ট করার নিয়ম – নেট স্পিড চেক করুন সহজেই!

আইফোনে হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার

অ্যান্ড্রয়েড ফোন আর আইফোন এর হটস্পট চালু করার নিয়ম স্বভাবতই কিছুটা ভিন্ন। তবে আইফোনে হটস্পট সেটিং অনেক সহজ, যা অনেকেই জানেন না। আইফোন বা আইপ্যাড থেকে হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার করার নিয়ম জেনে নেই চলুন।

আইফোন বা আইপ্যাড এ হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার করতেঃ

  • Settings অ্যাপে প্রবেশ করুন
  • Personal Hotspot সেকশনে প্রবেশ করুন
  • Allow Other To Join এর পাশে থাকা স্লাইডারটি অন করে দিলেই হটস্পট চালু হয়ে যাবে
আইফোন হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার করার নিয়ম

যেকেউ যাতে আপনার ওয়াইফাই হটস্পট ব্যবহার করতে না পারে কিংবা ওয়াইফাই হটস্পট এর পাসওয়ার্ড সহজেই মনে রাখতে অবশ্যই আপনার আইফোনের হটস্পট এর ডিফল্ট পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন।

আরো জানুনঃ হারানো এন্ড্রয়েড ফোন খুঁজে পাওয়ার সহজ উপায়

উইন্ডোজ কম্পিউটারে হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার

শুধুমাত্র মোবাইল নয়, বরং আপনার উইন্ডোজ বা ম্যাক অপারেটিংস সিস্টেম চালিত কম্পিউটারের ইন্টারনেটও শেয়ার করতে পারবেন অন্যান্য ডিভাইসের সাথে। এক্ষেত্রে আপনার উইন্ডোজ কম্পিউটারে অবশ্যই ওয়াইফাই কানেক্টিভিটি চিপ থাকতে হবে। উইন্ডোজ ১০ চালিত সকল কম্পিউটারে হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার এর সুবিধা রয়েছে।

উইন্ডোজে মোবাইল হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার করার নিয়ম

উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম চালিত কম্পিউটারে হটস্পট চালু করতে প্রথমে কম্পিউটারের স্টার্ট মেন্যু থেকে Network & Internet এ ক্লিক করুন। এরপর Mobile Hotspot এ ক্লিক করুন। এরপর কোন নেটওয়ার্কটি শেয়ার করতে চান, সেটি সিলেক্ট করে ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক এর নাম ও পাসওয়ার্ড সেট করে দিলেই আপনার মোবাইল হটস্পট ব্যবহারের জন্য চালু হয়ে যাবে।

আরো জানুনঃ ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়

ম্যাক ওএস এ হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার

ম্যাক কম্পিউটারগুলোতে সেলুলার ইন্টারনেট কানেকশন না থাকলেও, ইউএসবি ডংগল বা ইথারনেট ইন্টারনেট কানেকশন ওয়াইফাই হটস্পট ব্যবহার করে শেয়ার করা যায়। ম্যাক ওএস এ হটস্পট চালু করতে ম্যাক এর System Preferences এ ক্লিক করুন ও  Sharing অপশন সিলেক্ট করুন।

ম্যাকে মোবাইল হটস্পট দিয়ে ইন্টারনেট শেয়ার করার নিয়ম

এরপর কোন ইন্টারনেট কানেকশনটি শেয়ার করতে চান ও কোন উপায় শেয়ার করতে চান, তা ক্লিক করুন। ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক এর জন্য নাম ও পাসওয়ার্ড সেট করুন। সেটিং করা হয়ে গেলে Internet Sharing এর পাশে থাকা চেক মার্কে ক্লিক করলেই হটস্পট চালু হয়ে যাবে।

হটস্পট দিয়ে শেয়ার করা ইন্টারনেট কি নিরাপদ?

কফি শপ বা হোটেলের পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করার চেয়ে নিজের মোবাইল হটস্পট নিরাপত্তার দিক দিয়ে অনেক এগিয়ে থাকবে। ফোনের হটস্পট নিজের অন্য ডিভাইসে ব্যবহার করা অনেকটা মোবাইলে ফোন কল করা কিংবা ইন্টারনেট সার্ফিং করার মতোই নিরাপদ। কেননা, ফোনের ডাটা ট্রাফিক ১২৮-বিট এনক্রিপশন এর সাহায্যে স্নো স্ট্রিম সাইফার ব্যবহার করে এনক্রিপটেড করা থাকে।

মোবাইল হটস্পটে কোন ডিভাইসগুলো যুক্ত হতে পারবে?

মোবাইল হটস্পট অনেকটা ওয়াইফাই এর মতো কাজ করে। যেসব ডিভাইসে ওয়াইফাই এ কানেক্ট হওয়ার ফিচার রয়েছে, সেসব ডিভাইস স্বাভাবিকভাবে ওয়াইফাই যেভাবে ব্যবহার করে সেভাবেই মোবাইল হটস্পট এর মাধ্যমে শেয়ার করা ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবে। অর্থাৎ মোবাইল, ল্যাপটপ, ট্যাবলেট থেকে শুরু করে গেমিং কনসোল পর্যন্ত মোবাইল হটস্পট ব্যবহার করতে পারবে।

একই সাথে কয়টি ডিভাইস একই হটস্পট ব্যবহার করতে পারে?

এটা আসলে হটস্পট দেয়া ডিভাইসের উপর নির্ভর করে। আপনি এটা ডিভাইসের সেটিংস থেকে পরিবর্তন করতে পারবেন। তবে একই মোবাইল থেকে শেয়ার করা হটস্পট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়লে ইন্টারনেট স্পিডের ক্ষেত্রেও তারতম্য দেখা যাওয়া স্বাভাবিক।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 5,570 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.