এন্ড্রয়েড ফোনে অ্যাপ হাইড করার উপায়

অ্যাপ আনইন্সটল করা বা ডিলিট করার নিয়ম অধিকাংশ এন্ড্রয়েড ব্যবহারকারী জানেন। কোনো অ্যাপ কাজে না লাগলে আমরা তা আনইন্সটল করে থাকি। তবে কোনো অ্যাপ লুকিয়ে রাখতে চাইলে সেক্ষেত্রে কি করা যেতে পারে? আপনি যদি পরিবার বা বন্ধুদের হাতে ফোন দিয়ে থাকেন, তবে ব্যক্তিগত বা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য লুকিয়ে রাখার সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

অ্যাপ লক করা বা ফাইল হাইড করে রাখা আপনার কাছে যথেষ্ট মনে না হলে সরাসরি কাংখিত অ্যাপ হাইড করে রাখতে পারেন। এই পোস্টে জানবেন অ্যান্ড্রয়েড ফোনে অ্যাপ হাইড করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত।

এন্ড্রয়েড ফোনে অ্যাপ হাইড করার উপায়

কিছু নির্দিষ্ট অ্যান্ড্রয়েড ফোনে হোম স্ক্রিন বা ফোনের সেটিংস থেকে অ্যাপ হাইড করার ফিচার বিল্ট-ইন রয়েছে। স্যামসাং, শাওমি, রিয়েলমি, ওয়ানপ্লাস ও হুয়াওয়ে ফোনে এই বিল্ট-ইন ফিচার ব্যবহার করে অ্যাপ হাইড করা যাবে। আপনার ফোনে যদি অ্যাপ হাইড করার ফিচার না থাকে, তবে থার্ড-পার্টি অ্যাপ ব্যবহার করে একই কাজ করতে পারবেন যা পোস্টের শেষের দিকে উল্লেখ করা হয়েছে। প্রথমে চলুন জেনে নেওয়া যাক বিল্ট-ইন ফিচার দ্বারা বিভিন্ন ব্র‍্যান্ডের এন্ড্রয়েড ফোনে অ্যাপ হাইড করার নিয়ম।

স্যামসাং

প্রায় সকল স্যামসাং ফোনে একই নিয়ম অনুসরণ করে অ্যাপ হাইড করা যাবে৷ স্যামসাং ফোনে অ্যাপ হাইড করতেঃ

  • অ্যাপ ড্রয়ারে প্রবেশ করুন
  • উপরে ডানদিকে থাকা থ্রি-ডটে ট্যাপ করুন
  • Home screen settings / Settings ওপেন করুন
  • Hide apps অপশন সিলেক্ট করুন 
  • যে অ্যাপটি হাইড করতে চান, সেটি সিলেক্ট করুন ও Apply / Done অপশনে ট্যাপ করে কনফার্ম করুন

একই পথ অনুসরণ করে পরে হিডেন অ্যাপগুলো আবার এক্সেস করতে পারবেন।

শাওমি / রেডমি

শাওমি ও রেডমি ফোনে বিল্ট-ইন অ্যাপ লক ফিচার আছে যার মাধ্যমে অ্যাপ হাইড করা যাবে। শাওমি ফোনে অ্যাপ হাইড করতেঃ

  • Settings থেকে Apps মেন্যুতে প্রবেশ করুন
  • App lock অপশনে ট্যাপ করুন
  • এরপর হাইড করা অ্যাপের জন্য পাসকোড প্রদান করুন
  • Hidden Apps অপশনে ট্যাপ করুন
  • যেসব অ্যাপ হাইড করতে চান, সেগুলো সিলেক্ট করুন
  • এরপর কাংখিত অ্যাপ হাইড হয়ে যাবে

লুকিয়ে রাখা অ্যাপ অ্যাকসেস করতে হলে স্ক্রিনের উপর দুটি আঙ্গুল রেখে বিপরীত দিকে সোয়াইপ করুন। এটি আপনাকে স্ক্রিনে আরও ভালভাবে দেখানো হবে যখন আপনি অ্যাপ হাইড করতে যাবেন।

রিয়েলমি / অপো

রিয়েলমিঅপো ফোনে একই উপায়ে অ্যাপ হাইড করা যাবে। “App Lock” নামের এই ফিচার ব্যবহার করে রিয়েলমি ও অপো ফোনে অ্যাপ হাইড করতেঃ

  • মোবাইলের সেটিংস থেকে Privacy অপশনে ট্যাপ করুন
  • এরপর খুঁজে নিয়ে “App Lock” অপশনে ট্যাপ করুন
  • এরপর লক এর জন্য পাসকোড সেট করুন
  • যেসব অ্যাপ হাইড করতে চান সেগুলো সিলেক্ট করুন App Lock ও Hide from home screen অপশন চালু করুন

রিয়েলমি ও অপো ফোনের অ্যাপ লক এর মাধ্যমে অ্যাপ হাইড করার জন্য যে কোড ব্যবহার করা হয়েছে তার আগে ও পরে হ্যাশ (#) যোগ করে ডায়াল করলে হাইড করা অ্যাপসমূহ অ্যকসেস করা যাবে। অর্থাৎ আপনি যদি 1234 পাসকোড দ্বারা ইউটিউব লক করে রাখেন, তবে এই লক খুলতে ফোন অ্যাপে গিয়ে #1234# ডায়াল করুন।

ভিভো

ভিভো ফোনে অ্যাপ হাইড করতেঃ

  • ফোনের সেটিংস থেকে Fingerprint, face and password অপশনে প্রবেশ করুন
  • Privacy and app encryption সিলেক্ট করুন
  • এরপর Hide app অপশনে ট্যাপ করুন
  • যেসব অ্যাপ হাইড করতে চান সেগুলো লিস্ট থেকে সিলেক্ট করুন
  • এরপর উক্ত অ্যাপ রিসেন্ট অ্যাপ ইন্টারফেস থেকে মুছে ফেলুন যাতে সব জায়গা থেকে হাইড হয়ে যায়

স্ক্রিনের ওপর দুটি আঙ্গুল রেখে উপরের দিকে সোয়াইপ করলে হিডেন অ্যাপ দেখা যাবে। পাসওয়ার্ড দরকার হবে।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

এন্ড্রয়েড ফোনে অ্যাপ হাইড করার উপায়

ওয়ানপ্লাস

ওয়ানপ্লাস ফোনে Hidden Space নামে একটি ফিচার আছে যার মাধ্যমে অ্যাপ হাইড করা যায়। এই ফিচারের মাধ্যমে বাড়তি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পাসওয়ার্ড ও সেট করা যায়। ওয়ানপ্লাস ফোনে অ্যাপ হাইড করতেঃ

  • অ্যাপ ড্রয়ার ওপেন করুন ও ডানদিকে সোয়াইপ করুন
  • অ্যাপ এড করতে + আইকনে ট্যাপ করুন
  • চেকমার্কে ট্যাপ করে কনফার্ম করুন
  • ডান দিকের টপ কর্নারে থাকা থ্রি ডট এ ট্যাপ করুন
  • এরপর Enable password অপশন ব্যবহার করে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার জন্য পাসওয়ার্ড সেট করুন
  • পরবর্তীতে হাইড করা অ্যাপ পুনরায় এক্সেস করতে চাইলে একই মেন্যু থেকে আগে আনহাইড করে নিতে হবে।

হুয়াওয়ে

হুয়াওয়ে ফোনে Private Space নামে একটি প্রাইভেট ফোল্ডার আছে যেখানে অ্যাপ এর পাশাপাশি ফাইল ও লক করা যায় ফিংগারপ্রিন্ট এর মাধ্যমে। তবে হোমস্ক্রিন থেকে অ্যাপ প্রাইভেট স্পেসে সরাসরি লুকিয়ে রাখা যায়না। বরং প্রাইভেট স্পেসে ব্যবহারের জন্য অ্যাপগুলো আলাদাভাবে ডাউনলোড করতে হয়। প্রাইভেট স্পেস চালু করতেঃ

  • Settings এ প্রবেশ করে Security & privacy সিলেক্ট করুন
  • Private Space অপশনে প্রবেশ করে সেটাপ সম্পন্ন করুন
  • এরপর যেসব অ্যাপ হাইড করে ব্যবহার করা চান সেসব অ্যাপ ডাউনলোড করুন প্রাইভেট স্পেসে প্রবেশ করে
  • এসব অ্যাপ এক্সেস করতে চাইলে প্রাইভেট স্পেসে গিয়ে এক্সেস করুন

বোনাস ভিডিও – গ্রামীণফোন ই-সিম সম্পর্কে যেসব তথ্য আপনার জানা দরকার

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

থার্ড পার্টি অ্যাপ ব্যবহার

যেসব ফোনে অ্যাপ হাইড করা যায়না থার্ড পার্টি অ্যাপ ব্যবহার করে সেসব ফোনেও অ্যাপ হাইড করা যাবে। আবার বিভিন্ন লঞ্চার ব্যবহার করেও অ্যাপ হাইড করা যেতে পারে।

অ্যাপ হাইড করার ফিচার প্রদান করে এমন কিছু অ্যান্ড্রয়েড লঞ্চার হলো – নোভা লঞ্চার, ইউ লঞ্চার, অ্যাপেক্স লঞ্চার, ইত্যাদি৷ এছাড়া অনেক অ্যাপ ব্যবহার করে অ্যাপ হোমস্ক্রিন বা অ্যাপ ড্রয়ার থেকে হাইড করা যায়। অ্যাপ হাইডার, হাইডইউ, ডায়ালার লক, ইত্যাদি কিছু থার্ড পার্টি অ্যাপ যা ব্যবহার করে অ্যাপ হাইড করা যায়।

উপরের নিয়মগুলো সময়ের সাথে ফোন কোম্পানির আপডেটের কারণে সামান্য এদিক-সেদিক হতে পারে। তবে মূলনীতি মোটামুটি একই থাকবে আশা করা যায়। আপনার মতামত কমেন্টে জানানোর অনুরোধ রইল।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,060 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.