ইউরেনিয়ামের সন্ধান পাওয়া গেছে বাংলাদেশে!

uranium-in-handsবাংলাদেশ ভূতাত্বিক জরিপ অধিদপ্তর (জিএসবি) দেশটিতে মহামূল্যবান খনিজ পদার্থ ইউরেনিয়ামের সন্ধান পেয়েছে। পদ্মা, যমুনা, ব্রহ্মমুত্র, ময়মনসিংহ ও বৃহত্তর সিলেটের নদীবাহিত বালুতে বেশ কয়েক প্রকার খনিজ ও রাসায়নিক পদার্থের পাশাপাশি আহরণযোগ্য ইউরেনিয়ামও রয়েছে বলে জিএসবি এবং বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সূত্রে খবর পাওয়া গিয়েছে। সন্ধানপ্রাপ্ত এসব উপাদান বিশ্ববাজারে অত্যাধিক চাহিদাসম্পন্ন এবং মূল্যবান।

এর আগে, বৃহত্তর ময়মনসিংহ জেলার গারো পাহাড় পাদদেশেও ইউরেনিয়ামের খোঁজ পেয়েছিল জিএসবি। তবে তা বাণিজ্যিকভাবে আহরণের উপযোগী ছিলনা।

বাংলাদেশ ভূতাত্বিক জরিপ অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, পদ্মা, যমুনা ও ব্রহ্মপুত্রের অন্তত ১০ স্থানের ২০ মিটার গভীর থেকে বালুর নমুনা নিয়ে বিশ্লেষণ করে তাতে ৯.৫% আহরণযোগ্য ভারী খনিজ ও রাসায়নিক পদার্থের উপস্থিতি দেখা যায়। অবশ্য, এই পরিমাণ মাত্র ৭% থাকলেও সেটি বাণিজ্যিকভাবে আহরণের উপযোগী বলে বিবেচিত হয়। অপরদিকে প্রতিটন বালুতে ১ গ্রাম ইউরেনিয়াম পেলেই তা সংগ্রহযোগ্য ধরা হলেও বাংলাদেশের উক্ত এলাকায় এর উপলভ্যতা আরও বেশি রয়েছে।

প্রাপ্ত এসব খনিজের মধ্যে রয়েছে রয়েছে বেরিয়াম, ট্রিটানিয়াম, জিরকন, রুবিডিয়াম, স্ট্রনটিয়াম, ক্রোমিয়াম, নিকেল, ট্যান্টালাম, নিওবিয়াম, রুথেনিয়াম, অসমিয়াম ও ইন্ডিয়াম। এগুলো কাগজকল, ছাপাখানা, রাবার, ওষুধ, সিনথেটিক, ইলেকট্রনিক প্রভৃতি শিল্পে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। আর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, পারমাণবিক গবেষণা এবং সমরশিল্পে ইউরোনিয়াম একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। ইতোপূর্বে বাংলাদেশে প্লাটিনাম (সবচেয়ে দামি খনিজ পদার্থ) থাকার কথাও শোনা গিয়েছে।

তথ্যসূত্রঃ প্রথম আলো

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,104 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.