ম্যালওয়্যার প্রতিরোধে বিং থেকে ৫ গুন বেশি নিরাপদ গুগল!

google vs bing stat

যদিও বেশিরভাগ লোকজনই গুগল ব্যবহারে অভ্যস্ত, তারপরেও মাইক্রোসফট বিং সার্চ ইঞ্জিনও কম যায় না। উইন্ডোজ নির্মাতা কর্তৃক তথ্য খোঁজায় তুলনামূলক নতুন এই সেবাও দ্রুত বেড়ে উঠছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে গুগলের চেয়ে বেশি দক্ষতা প্রদর্শন করে বিং (যেমন ইমেজ সার্চ); তবে এই “বেশি” কনটেন্ট তুলে আনার প্রবণতা বিং’কে একটু অসুবিধার মধ্যেও ফেলে দিয়েছে। কেননা, সার্চ ফলাফলে ম্যালওয়্যার লিংক লিস্ট করার দিক দিয়েও সংখ্যাগতভাবে গুগলের চেয়ে বেশি স্কোর করেছে বিং।

পিসি ম্যাগের প্রতিবেদন অনুযায়ী, জার্মান নিরাপত্তামূলক প্রতিষ্ঠান এভি-টেস্ট পরিচালিত ১৮ মাসব্যাপী এক গবেষণার ফলাফল থেকে জানা যায়, সার্চ জায়ান্ট গুগল তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বিংয়ের চেয়ে তুলনামূলক বেশি নিরাপদ। কারণ রেডমন্ডের সার্চ টুল গুগলের চেয়ে বেশি ক্ষতিকর লিংক দেখিয়ে থাকে।

“১১০ মিলিয়নের বেশি ম্যালওয়্যার সক্রিয় আছে ওয়েবে”: এভিটেস্ট

আগস্ট ২০১১ থেকে ফেব্রুয়ারি ২০১৩ পর্যন্ত এভি-টেস্ট বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিন কর্তৃক সরবরাকৃত প্রায় ৪০ মিলিয়ন ওয়েবসাইট বিশ্লেষণ করেছে যার অর্ধেকের বেশি গুগল ও বিং থেকে পাওয়া। অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিনগুলোর মধ্যে রয়েছে ইয়ান্ডেক্স, ব্লেককো, ফারো, বাইদু ইত্যাদি।

উক্ত গবেষণার ফলাফলে সবার সেরা অবস্থান দখল করেছে গুগল এবং তার পরেই আছে মাইক্রোসফট বিং। এক্ষেত্রে গুগলের সার্চ ফলাফলে সবচেয়ে কম ০.০০২৫ শতাংশ ম্যালওয়্যার লিংক পাওয়া গিয়েছে। এরপরে আসে বিং, যার ফলাফলে ছিল ০.০১২ শতাংশ ক্ষতিকর সাইটের ঠিকানা এবং ইয়ান্ডেক্সে পাওয়া যায় ০.০২৪%।

সুতরাং ম্যালওয়্যারজনিত নিরাপত্তার বিচারে গুগল সার্চ বিং এর চেয়ে পাঁচ গুন বেশি নিরাপদ।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,100 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.