“সেফ মুড” থেকে ফিরে মঙ্গলগ্রহে কাজ শুরু করল কিউরিওসিটি রোবট

cuমঙ্গলগ্রহে নাসা’র কিউরিওসিটি রোবট যান্ত্রিক গোলযোগে আক্রান্ত হয় প্রায় দুই সপ্তাহ আগে। তারপর একে ব্যাকআপ কম্পিউটারের মাধ্যমে সীমিত কার্যক্ষমতায় সক্রিয় রাখা হয়েছিল। মহাজাগতিক রশ্মির কারণে কিউরিওসিটির মূল কম্পিউটারের ফাইলসিস্টেম করাপটেড হয়।

অতি সম্প্রতি আরেকটি সফটওয়্যার ত্রুটি দেখা দেয়ায় একে “কম্পিউটার বি” এর অধীনেই সেইফ মুডে নেয়ার প্রয়োজন পরে। দুই দিন এভাবে চলার পর গতকাল পুনরায় কাজ শুরু করে কিউরিওসিটি। কিউরিওসিটি রোভারের পক্ষ থেকে @কিউরিওসিটি টুইটার একাউন্টে একটি টুইট বার্তায় তথ্যটি জানা গিয়েছে। সফটওয়্যার জনিত সর্বশেষ যে ত্রুটি দেখা দিয়েছে সেটিও সমাধানযোগ্য বলে সংস্থাটির বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন।

রোবটটির “এ সাইড” কম্পিউটারটি ইতোমধ্যেই উপলভ্য হয়েছে এবং যেকোন সময় কাজে লাগলে তা ব্যবহার করা যাবে। তবে সক্রিয় কম্পিউটারের সফটওয়্যারে এখনও বেশ কিছু চেক কমান্ড প্রেরণ করতে হবে যার পর ১ মাসের জন্য এসব দূর নিয়ন্ত্রিত নির্দেশনা পাঠানো বন্ধ থাকবে। নাসা জানিয়েছে, মহাজাগতিক সাময়িক পরিবর্তন জনিত সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পেতেই উক্ত পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 2,643 other subscribers

আগেই হয়ত জেনে থাকবেন, প্রায় ১ টন ওজনের কিউরিওসিটি রোবট ২০১২ সালে মঙ্গলগ্রহে প্রেরিত হয়। সেখানে বিভিন্ন অবস্থার গুরুত্বপূর্ণ ছবি পাঠানো এবং পাথর নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু করার অল্প কিছুদিনের মধ্যেই এর ফ্ল্যাশ মেমোরিতে ফাইল সিস্টেম করাপ্টেড হয়ে যায়। নাসার গবেষকরা এই ঘটনার জন্য বিপথগামী নভোরশ্মিকে দায়ী করেছেন।

আমাদের ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুন!

     
প্রযুক্তির সব তথ্য জানতে ভিজিট করুন www.banglatech24.com সাইট। নতুন পোস্টের নোটিফিকেশন ইমেইলে পেতে এই লিংকে গিয়ে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Comments