ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে এই সাবধানতাগুলো মেনে চলুন

ব্যাংক থেকে নতুন কার্ড নিতে চাইলে একাধিক অপশন প্রদান করা হয়। এর মধ্যে ক্রেডিট কার্ড ও রয়েছে। তবে সাবধানতার সহিত ব্যবহার না করলে ক্রেডিট কার্ডের কারণে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। এই পোস্টে ক্রেডিট কার্ডের নিরাপত্তা বজায় সম্পর্কিত তথ্য জানতে পারবেন। এছাড়া কিভাবে অনুমোদনবিহীন ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার এড়িয়ে চলবেন, সেটিও জানতে পারবেন।

কার্ড সাথে রাখুন (অথবা নিরাপদে সংরক্ষণ করুন)

শুনতে বোকার মত শোনালেও সবসময় কার্ড সাথে রাখার ব্যাপারটি ক্রেডিট কার্ডের নিরাপত্তা নিশ্চিতের ক্ষেত্রে বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। সবসময় ক্রেডিট কার্ড আপনার সাথে রাখার চেষ্টা করুন অথবা নিরাপদে কোথাও সংরক্ষণ করুন। কোনো কিছু ক্রয়ের সময় কার্ড ভুলেও চোখের আড়াল করা যাবেনা। কোথাও ক্রেডিট কার্ড দ্বারা সোয়াইপ করে পেমেন্ট করার ক্ষেত্রে উক্ত স্থানে উপস্থিত থাকুন।

নিয়মিত পিন পরিবর্তন করুন

লেনদেনের ক্ষেত্রে কার্ডের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দায়িত্ব থাকে পিন (PIN) এর কাছে। তাই সহজে অনুমান করা যায়না, এমন পিন ব্যবহার করা উচিত। আপনার পরিচিত কেউ সহজে অনুমান করতে পারবে, এমন পিন সেট করা উচিত নয়।

এক্ষেত্রে নিয়মিত পিন পরিবর্তন বেশ কাজে আসতে পারে। ক্রেডিট কার্ডের যেকোনো ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ব্যবহার এড়াতে নিয়মিত পিন পরিবর্তন এর অভ্যাস গড়ে তুলুন। অন্তত প্রতি ৬মাসে হলেও একবার আপনার ক্রেডিট কার্ডের পিন পরিবর্তন করুন।

পিন শেয়ার করবেন না

ক্রেডিট কার্ডের পিন বা কোনো ধরনের ওটিপি কোড কারো সাথে শেয়ার করা উচিত নয়। প্রতারক আপনাকে ফোন করে বলবে, আপনার একাউন্ট আপডেট এর কাজ চলছে। প্রতারকের এমন ফাঁদে পা দিলে আপনার ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে বিপদে পড়তে পারেন।

আবার সহজে কেউ দেখতে পারে এমন কোথাও আপনার ক্রেডিট কার্ডের পিন লিখে রাখবেন না। বিশেষ করে ক্রেডিট কার্ডের গায়ে কখনো ক্রেডিট কার্ডের পিন লিখে রাখা উচিত নয়। আবার আপনার ফোনেও আপনার ক্রেডিট কার্ডের তথ্য লিখে রাখা থেকে বিরত থাকুন। এতে ফোন হারিয়ে গেলে বা ভুল মানুষের হাতে পড়লে ক্রেডিট কার্ডের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয়।

এলার্ট ও স্টেটমেন্ট চেক করা

ব্যাংক থেকে এসএমএস এর মাধ্যমে ক্রেডিট কার্ডের লেনদেনের সব ধরনের তথ্য জানানো হয়। এই লেনদেনের তথ্য ফেলনা মনে হলেও, বাস্তবিক পক্ষে এসএমএস এর মাধ্যমে পাওয়া যেকোনো ধরনের তথ্য কিন্তু অনেক গুরুত্ব বহন করে।

এসব এলার্ট এসএমএস এর পাশাপাশি ব্যাংক স্টেটমেন্ট নিয়মিত ভালোভাবে চেক করা উচিত। এতে আপনার চোখ এড়িয়ে যাওয়া কোনো ধরনের সন্দেহজনক লেনদেন সম্পর্কে জানতে পারবেন।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে কার্ড ব্যবহার এড়িয়ে চলা

কিছু নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে কার্ডের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার এড়িয়ে চলা উত্তম। কোনো অ্যাপ বা ওয়েবসাইটে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের আগে উক্ত অ্যাপ বা ওয়েবসাইট কতটুকু নিরাপদ তা নিশ্চিত করুন। ইন্টারেনেটে থাকা উক্ত অ্যাপ বা ওয়েবসাইট সম্পর্কে পোস্ট করা রিভিউসমূহ ঘুরে আসুন।

কোনো ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে কিছু কেনার আগে নিশ্চিত করুন যে ঐ ওয়েবসাইট এর লিংকে https:// আছে কিনা। https:// দ্বারা ওয়েবসাইটের লিংক শুরু হলে উক্ত ওয়েবসাইটকে টেকনিক্যালি কিছুটা নিরাপদ বলা চলে। তবে এর মালিক যদি প্রতারক হয় তাহলে সে চাইলে আপনার কার্ডের তথ্য চুরি করতে পারে বা টাকা আত্নসাত করতে পারে। তাই একটি সাইট বা অ্যাপে ক্রেডিট কার্ড দিয়ে পে করার আগে নিশ্চিত হয়ে নিন সেটির মূল মালিকের বিশ্বাসযোগ্যতা সম্পর্কেও।

ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে এই সাবধানতাগুলো মেনে চলুন

সন্দেহজনক লিংকে ক্লিক করবেন না

ক্রেডিট কার্ড সম্পর্কিত ইমেইল বা মেসেজ এর নাম করে নিয়মিত প্রতারণা করা হয়ে থাকে। এসব ইমেইল বা মেসেজে লিংক দেওয়া থাকে, যাতে ক্লিক করলে ক্রেডিট কার্ডের নিরাপত্তা নষ্ট হতে পারে।

এভাবে লিংক সেন্ড করে ইমেইল বা মেসেজ এর মাধ্যমে ফিশিং এটাক করা হয়। মনে রাখবেন, ব্যাংক কখনো আপনার পিন বা অন্য কোনো তথ্য ফোন করে, ইমেইল বা টেক্সট এর মাধ্যমে জানতে চাইবেনা। কেউ যদি ব্যাংকের নাম করে এসব তথ্য চায়, তবে বুঝে নিতে হবে এটি প্রতারকের কাজ।

যেকোনো ইমেইল পড়ার আগে বা অ্যাকশন নেওয়ার আগে প্রেরকের ইমেইল এড্রেস, লোগো, ফুটার ইত্যাদি বিষয় বিবেচনা করুন। ব্যাংক এর নাম করে পাঠানো এমন কোনো ধরনের ফেইক ইমেইল পেলে তা ব্যাংকের নিকট রিপোর্ট করতে ভুলবেন না।

👉 নতুন ক্রেডিট কার্ড নেয়ার পর করণীয়

কার্ড হারিয়ে গেল করণীয়

ক্রেডিট কার্ড চুরি হয়ে যাওয়া কিংবা হারিয়ে ফেললে সেক্ষেত্রে তৎক্ষণাৎ ব্যাংক একাউন্ট আপডেট করা উচিত। সাথে সাথে ক্রেডিট কার্ড ব্লক করে দিলে উক্ত ক্রেডিট কার্ড এর অনাকাঙ্ক্ষিত ব্যবহার থেকে মুক্তি পাওয়া যবে।

আপনার ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে কোনো ধরনের ভুল হলে কিংবা অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো লেনদেন চোখে পড়ল তা যত দ্রুত সম্ভব ক্রেডিট কার্ড ইস্যুকারী ব্যাংককে জানান। 

ব্যাংকের সাথে একাধিক উপায়ে কনটাক্ট করা যায়, যেমনঃ কল কিংবা অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমে। ব্যাংককে জানালে তারা ক্রেডিট কার্ড ব্লক করে দিবে ও কোনো ধরনের প্রতারণাপূর্ণ লেনদেন রুখে দিবে।

ক্রেডিট কার্ডের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে উল্লেখিত বিষয়গুলো মেনে চলছেন তো? আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,613 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.