রাষ্ট্রীয় কাজে ড্রোন ব্যবহার করবে দুবাই!

uae_drone-660x447অনলাইন রিটেইলার কোম্পানি অ্যামাজন আগামী চার-পাঁচ বছরের মধ্যে মালামাল পরিবহনের কাজে চালকবিহীন বিমান বা ড্রোন ব্যবহারের ঘোষণা দিয়েছিল ২০১৩ সালে। কিন্তু অ্যামাজনের আগেই ড্রোন নিয়ে মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

দুবাইয়ের সরকারী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তারা জনগণের নিকট বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় নথিপত্র পৌঁছে দেয়ার কাজে ড্রোনের ব্যবহার পরীক্ষা করছেন। আগামী বছরের মধ্যেই দেশটিতে আনুষ্ঠানিকভাবে এই প্রকল্প চালু হতে পারে। এছাড়া, লোকজনের নিকট বিভিন্ন সরকারী সেবা সরবরাহের জন্যও ড্রোন ব্যবহার করবে দুবাই।

ইউএইর নিজস্ব গবেষক ও প্রকৌশলীদের তৈরি এই ড্রোন বানাতে মাত্র ৪০০০ দিরহাম খরচ হবে যার ব্যাটারি একবার পুরোপুরি চার্জ দিলে এটি ৪০ কিলোমিটার/ঘন্টা গতিতে ৩ কিলোমিটার দূরত্বে ভ্রমণ করতে পারে। এটি ১.৫ কেজি পর্যন্ত ভার বহনে সক্ষম।

সরকারি ডকুমেন্ট যথাযথ প্রাপকের নিকট পৌঁছে দেয়ার ক্ষেত্রে মালিকানা যাচাইয়ের জন্য ড্রোনটি আই স্ক্যানার ও ফিঙ্গার প্রিন্ট সেন্সর ব্যবহার করবে। আর গুগল ম্যাপের সহায়তায় ডিভাইসটি সঠিক গন্তব্যে পৌঁছাবে।

আপনিও কি এ ধরণের আধুনিক সুবিধা পেতে চান? আপনার এলাকায় কবে নাগাদ ড্রোন সার্ভিস চালু হতে পারে বলে মনে করেন?

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,636 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.