বিল গেটসের লোকহিতৈষী হয়ে ওঠার পেছনের গল্প

bill gates img 342134

‘বিল অ্যান্ড মিলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন’ হচ্ছে মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ও তার স্ত্রী মিলিন্ডা গেটসের দাতব্য সংস্থা। এটি গেটস ফাউন্ডেশন নামেও পরিচিত। ২০০০ সালে চালু হওয়া এই সংস্থাটি বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্বচ্ছভাবে পরিচালিত প্রাইভেট ফাউন্ডেশন হিসেবে পরিচিত। সংস্থাটি মূলত স্বাস্থ্যসেবার উন্নতি ও দরিদ্র জনগোষ্ঠীর উন্নয়ন নিয়ে কাজ করছে। আপনারা কি জানেন কীভাবে প্রতিষ্ঠিত হয় ‘বিল অ্যান্ড মিলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন’? আসুন জানা যাক সেই কথা।

বিল গেটস সবসময় ভাবতেন কীভাবে পৃথিবীর সকল মানুষকে কম্পিউটার কানেকশনের মধ্যে আনা যায়। যাদের অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান এবং নিরাপত্তা আছে তারাই কেবল কম্পিউটার ব্যবহার করে তাদের জীবনকে আরও সাবলীল করতে পারেন। কিন্তু যাদের মৌলিক চাহিদা পূরণ হচ্ছে না তাদের কাছে যোগাযোগ প্রযুক্তি কোন প্রয়োজনীয়তা সৃষ্টি করে না।

বিল গেটস প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের চাহিদা উপলব্ধি করতে একবার আফ্রিকা যান এবং সেখানে গিয়ে তিনি অনাহার, রোগে আক্রান্ত লোকদের ভোগান্তি দেখে চরমভাবে ব্যাথিত হন। এরপর তিনি তার স্ত্রীকে ফোন করে সেখানকার অভিজ্ঞতার কথা জানান। আর তখন থেকেই তার মনে সে সমস্ত জরা জীর্ণ সমস্যাগ্রস্থ লোকদের জন্য কিছু করার তাগিদ অনুভব করেন। আর সেখান থেকেই বিল এবং মিলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেসনের উৎপত্তি।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,409 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.