কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা মানবজাতির অস্তিত্বকে হুমকির মুখে ঠেলে দিতে পারেঃ স্টিফেন হকিং

Stephen Hawking

বিশিষ্ট তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং বিবিসি’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এই বলে সতর্ক করে দিয়েছেন যে, স্বয়ংসম্পূর্ণ কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা ‘আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স’ প্রযুক্তি মানবজাতির অস্তিত্বের জন্য হুমকি হয়ে উঠতে পারে।

শারীরিকভাবে অচল এই ব্রিটিশ বিজ্ঞানী কথা বলার জন্য প্রসেসর নির্মাতা কোম্পানি ইনটেল ও কিবোর্ড অ্যাপ ডেভলপার সুইফটকি’র তৈরি নতুন ধরণের যান্ত্রিক ব্যবস্থা ব্যবহার করছেন। এই সিস্টেম সম্পর্কে মন্তব্য দিতে গিয়ে তিনি একে বেশ কার্যকর বলে অভিহিত করেন। এটি মিঃ হকিং’কে কথা বলার ক্ষেত্রে বিভিন্নভাবে সাজেশন দেখিয়ে শব্দ নির্বাচনে সাহায্য করে।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ভিত্তিক এই যন্ত্রটি ব্যবহারের পর এর দক্ষতার ব্যাপারে ইতিবাচক মন্তব্য করলেও স্টিফেন হকিং এর সম্ভাব্য বিপদের আশঙ্কাও প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, এটি নিজ থেকে চালু হতে ও নিজেই নিজের মধ্যে পরিবর্তন আনতে পারে।

এসকল প্রক্রিয়া এতই দ্রুত ঘটতে পারে যা মানুষের পক্ষে টপকানো সম্ভব নাও হতে পারে- এমন শঙ্কাই পোষণ করেন হকিং।

আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স এর বিভিন্ন উপকারী ও সম্ভাব্য ধ্বংসাত্বক দিক নিয়ে অনেক আগে থেকেই বিভিন্ন আলোচনা-আশংকা প্রচলিত আছে। এ নিয়ে প্রচুর আর্টিকেল ও বেশ কিছু সিনেমাও রয়েছে।

আপনি কি মনে করেন, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা একদিন মানুষের জন্য ক্ষতিকর হয়ে উঠতে পারে?

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,058 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.