অ্যাকুরিয়ামে সাঁতার কাটবে ও আলো দেবে রোবটিক মাছ!

capsul lumipuff robot fishঅনেকেরই অ্যাকুরিয়ামে রঙিন মাছ রাখার শখ আছে। কিন্তু শুধু অ্যাকুরিয়ামভর্তি পানি আর তাতে মাছ ছেড়ে দিলেই হবেনা, এগুলোর সঠিক যত্নও নেয়া চাই। সময়মত খাবার দেয়া, নিয়মিত পানি পরিবর্তন করা, মাছের স্বাস্থ্যের দিকে খেয়াল রাখা আরও কত কী। তবে আপনি যদি এতসব আয়োজন ছাড়াই অ্যাকুরিয়ামে মাছ পোষার শখ মেটাতে চান, তাহলে আপনার জন্য আছে ‘ক্যাপস্যুল’।

না, এটা কোনও ওষুধ নয়; ক্যাপস্যুল হচ্ছে একটি গোলাকার পানিভর্তি ট্যাংক, যার মধ্যে রয়েছে রোবটিক মাছ। বদ্ধ এই অ্যাকুরিয়ামের বাসিন্দা রোবট মাছগুলোতে ওয়্যারলেস ইনডাকশন (বৈদ্যুতিক আবেশের মাধ্যমে শক্তি যোগান দেয়া) সুবিধা আছে। ফলে এদের ‘খাবার’ নিয়ে আপনাকে চিন্তা না করলেও চলবে। ‘লুমিপাফ’ নামক এসব রোবট মাছ অ্যাকুরিয়াম থেকে তারহীন পদ্ধতিতেই নিজের জন্য প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ সংগ্রহ করে নেবে।

লুমিপাফ নিয়ন্ত্রণ করার জন্য মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন বানিয়েছে এর নির্মাতা। আপনি এদের নাম দিতে পারবেন। মোবাইল স্ক্রিনে এগুলোর সাথে গেম খেলাও যাবে। আপনার মোবাইলে কোনও নোটিফিকেশন এলে মাছগুলো বিশেষভাবে আলো জ্বেলে সংকেত দেবে। ট্যাংকের মধ্যে ভাইব্রেশন সেন্সর থাকায় এটি স্পর্শ করা মাত্রই মাছগুলো তা বুঝে ফেলবে এবং তাতে সাড়া দেবে।

চমৎকার এই রোবটিক মাছগুলো ইতোমধ্যেই গিনেজ রেকর্ড বুকে নাম লিখিয়ে নিয়েছে। ২০১৫ সালের মাঝামাঝি বাজারে আসবে লুমিপাফ মাছ ও এই ক্যাপস্যুল ট্যাংক। এক সেট ক্যাপস্যুল ও রোবো-মাছের দাম হবে ২৭০ মার্কন ডলার।

কিনবেন নাকি ক্যাপস্যুল ট্যাংক ও রোবো-মাছ লুমিপাফ?

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,403 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.