অক্টোবরের শুরুতেই থ্রিজি চালু করবে গ্রামীণফোন!

grameenphone 3g imageআগামী মাসের শুরুতেই রাজধানী ঢাকা ও বন্দর নগরী চট্টগ্রামের নির্দিষ্ট কিছু এলাকায় থ্রিজি নেটওয়ার্ক পরিষেবা চালু করবে বলে জানিয়েছে দেশের সর্ববৃহত মোবাইল কোম্পানি গ্রামীণফোন। গতকাল ৮ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত স্পেকট্রাম নিলামে ২১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয়ে ১০ মেগাহার্টজ তরঙ্গ বরাদ্দ নেয়ার পর কোম্পানিটির সিইও বিবেক সুদ আজ এই ঘোষণা দেন।

সোমবার ঢাকার একটি হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মিঃ বিবেক আরও বলেন, নভেম্বরে ঢাকার অন্যান্য অংশ, গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জে যাবে গ্রামীণফোন থ্রিজি।

এরপর ডিসেম্বর নাগাদ দেশের সাত বিভাগীয় শহরে জিপির থ্রিজি সেবা চালু করা সম্ভব হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। বিটিআরসির তথ্যানুযায়ী জুলাইয়ের শেষ পর্যন্ত গ্রামীণফোনের গ্রাহক সংখ্যা ছিল  ৪ কোটি ৪৬ লাখ।

গ্রামীণফোনের বর্তমান সিমেই থ্রিজি!

থ্রিজি চালানোর জন্য গ্রাহকদের সিম পরিবর্তন করতে হবেনা। থ্রিজি প্যাকেজ কিনলেই বিদ্যমান সিমে সেবাটি উপভোগ করতে পারবেন। তবে ডেটা প্ল্যানের দাম কেমন হবে তা এখনও ঠিক হয়নি। ১০ মেগাহার্টজ স্পেকট্রামের থ্রিজি লাইসেন্স পেতে জিপিকে পরিশোধ করতে হচ্ছে প্রায় ১ হাজার ৬২৩ কোটি টাকা। আর অপর তিন বেসরকারি অপারেটর বাংলালিংকরবি ও এয়ারটেল প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানকে তাদের নিজ নিজ ৫ মেগাহার্টজ তরঙ্গের জন্য (একই রেটে) গুণতে হবে প্রায় ৮১৬ কোটি টাকা করে। সব মিলিয়ে এতে সরকারের আয় হচ্ছে ৪০৮১ কোটি টাকা।

নিলামে ওঠা দর (২ কোটি ১০ লাখ ডলার/মেগাহার্টজ) পরিশোধপূর্বক ১০ মেগাহার্টজ তরঙ্গ ব্যবহার করবে টেলিটক। এতে করে মোট ৫০ মেগাহার্টজ তরঙ্গ থেকে ২৫ মেগাহার্টজ তরঙ্গ বিক্রি হয়ে গেল। অবিক্রীত ১৫ মেগাহার্টজের ব্যাপারে পরে সিদ্ধান্ত হবে।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,561 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *