গুগলের বিরুদ্ধে আনীত ওরাকল সিইও’র অভিযোগ ‘সত্যি নয়’- এরিক শ্মিট

এন্ড্রয়েডে জাভা ব্যবহার সম্পর্কে গুগলের ভূমিকা নিয়ে ওরাকল সিইও ল্যারি এলিসন সম্প্রতি যে শক্ত মন্তব্য করেছেন, ওয়েব কোম্পানিটির পক্ষ থেকে তার জবাব দেয়া হয়েছে। গুগল এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান এরিক শ্মিট এলিসনের অভিযোগকে এক রকম ‘মিথ্যে-simply untrue’ বলেই উড়িয়ে দিয়েছেন। এলিসন বলেছিলেন গুগলের এন্ড্রয়েডে যে পদ্ধতিতে জাভা ব্যবহৃত হয়েছে তা ওরাকলের কপিরাইট লঙ্ঘন করে। জেনেশুনে এমন কাজ করায় ওয়েব ফার্মটির সিইও ল্যারি পেজ ও সবমিলিয়ে গুগলকেই ‘অসৎ’ বলে উল্লেখ করেছেন মিঃ এলিসন।

যদিও এন্ড্রয়েড ওএসে জাভা প্রয়োগ নিয়ে ইতোমধ্যেই ৬ বিলিয়ন ডলারের আইনী লড়াই হয়ে গিয়েছে, যেখানে ওরাকল হেরে যায়। ক্ষতিপূরণ দাবী করতে গিয়ে উল্টো গুগলকে অযথা উকিল খরচ বহন করানোর জন্য ওরাকলের ওপরই ১.১৩ মিলিয়ন ডলার জরিমানা চাপিয়ে দেন আদালত!

আর সেই একই বিষয়ে পুনরায় আক্রমণাত্বক আচরণের জবাবে এরিক শ্মিট ভদ্রভাবেই বলেছেন- আমরা যদিও অন্য কোম্পানিগুলোর সাথে জনসম্মুখে তর্ক-বিতর্ক সাধারণত এড়িয়ে যাই, তারপরেও ল্যারি এলিসনের মন্তব্য নিয়ে আমি অনেক প্রশ্ন পেয়েছি, যে আমরা আসলেই ওরাকলের সম্পদ (অবৈধভাবে) নিয়ে নিয়েছি (কিনা); এই অভিযোগটি আদৌ সত্যি নয়- এবং এটা কেবলমাত্র আমার কথা নয়, বরং যুক্তরাষ্ট্রের আদালতের রায়।

ঐ মামলায় আরও একটি বিষয় উঠে আসে যে, কোন ব্যক্তি বা সংস্থা কখনোই কোন কম্পিউটার প্রোগ্রামের আন্তঃযোগাযোগে ব্যবহৃত ভাষা/এপিআইয়ের গঠন কপিরাইট করাতে পারবেনা। এরিক আরও বলেন, দুটি সংখ্যা যোগ করার পদ্ধতি/ধারণা যেমন কপিরাইটযোগ্য নয়, এপিআইয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট এই ব্যাপারটিও তেমন কপিরাইটের আওতাভুক্ত হবেনা।

আপনাদেরও নিশ্চয়ই মনে আছে, ২০১২ সালে এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে জাভা’র ব্যবহার নিয়ে গুগলের নিকট বিশাল পরিমাণ ক্ষতিপূরণ দাবী করে কোর্টে গিয়েছিল ওরাকল। যদিও জাভার ডেভলপার ছিল সান মাইক্রোসিস্টেমস, কিন্তু ২০১০ সালে ৭.৪ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে সান কিনে নেয় ওরাকল। ফলে জাভার মালিকানাও লাভ করে এই ডেটা সেন্টার স্পেশালিস্ট কোম্পানি।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,561 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *