অনাকাংখিত কল ও এসএমএস প্রতিরোধে নীতিমালা করছে বিটিআরসি

Mobile Marketingগ্রাহকদের জন্য মানসম্মত মোবাইল ফোন সেবা নিশ্চিতকরণ এবং অনাকাংখিত কল/এসএমএস বিরক্তি রোধে দুটি নতুন নীতিমালা তৈরি করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন, বিটিআরসি। ইতোমধ্যেই জাতীয় টেলিযোগাযোগ গ্রাহক রক্ষা নীতিমালার খসড়া তৈরি সম্পন্ন হয়েছে। আর মোবাইল ব্যবহারকারীদেরকে সময়-অসময়ে বিরক্তিকর বিজ্ঞাপনমূলক কল এবং মেসেজ প্রেরণ বন্ধ করার জন্যও তৈরি হচ্ছে “ডু নট ডিস্টার্ব” নীতিমালা। এগুলো যথাসম্ভব দ্রুত কার্যকর করা হবে বলে রিপোর্ট করছে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

অবশেষে মোবাইল মার্কেটিংয়ের একটা অবকাঠামো আসছে

আপনি যে কোম্পানিরই মোবাইল ফোন সংযোগ ব্যবহার করে থাকেন না কেন, প্রায়ই বিভিন্ন প্রমোশনাল মেসেজ এবং ভয়েস কল পেয়ে আসছেন, যা অনেক ক্ষেত্রেই বিব্রতকর। বিভিন্ন কোম্পানির পণ্য/সেবা সম্পর্কে এসব রোবোকল রিসভ করলেই ভেসে আসে সিস্টেমে রেকর্ড করা কোন কণ্ঠ যা এখন খুবই নৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে উঠেছে। এক্ষেত্রে ইন্সুরেন্স প্রতিষ্ঠান, ব্যাংকিং, আবাসন শিল্প, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, নিত্যব্যবহারের দ্রব্য, ভ্রমণ, অটোমোবাইল প্রভৃতি বিষয়ে ফোন কল, এসএমএস বা সার্ভিস মেসেজ আসছে। বর্তমানে এগুলো বন্ধ করার কোনো উপায় নেই।

“ডু নট ডিস্টার্ব” নীতিমালাঃ এটি কার্যকর হলে টেলিমার্কেটিং প্রতিষ্ঠানের উক্ত কল বা মেসেজ নির্ভর বিজ্ঞাপন থেকে মুক্তি মিলবে। এজন্য বিশেষ শর্ট কোড দিয়ে বিভাগ অনুযায়ী বিনামূল্যে এসব বিজ্ঞাপন আসার দরজা বন্ধ করা যাবে। সেবাটি ২৪ ঘন্টার মধ্যেই সক্রিয় করার বিধানও থাকছে এই নীতিমালায়।

ইন্টারনেট ট্যারিফের জন্যও জরুরী ভিত্তিতে নীতিমালা প্রয়োজন

গ্রাহকদের স্বার্থ রক্ষার্থে নীতিমালাঃ এই নীতিমালার আওতায় অপারেটরগুলোর জ্ঞাত কারণে কোন সেবা বিঘ্নিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকলে তা আগে থেকেই ফোন, মেসেজ বা পত্রিকায় বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে গ্রাহকদের জানাতে হবে। ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষার জন্য কোম্পানিগুলোকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে এবং অনুমতি ছাড়া কারো গ্রাহক তথ্য হাতবদল হতে পারবে না।

মোবাইল ইন্টারনেটের ক্ষেত্রে শিশুরা যাতে সেবাটির অপব্যবহার করতে না পারে সেজন্য এতে অভিভাবকের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার ব্যবস্থা করতে হবে। ভাইরাস বা ম্যালওয়্যার প্রতিরোধেও উদ্যোগ নিতে হবে কোম্পানিগুলোর পক্ষ থেকে। আর গ্রাহকদের কমপক্ষে বিগত ৬ মাসের বিল সম্পর্কিত তথ্য ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সরবরাহের ব্যবস্থাও নিতে হবে।

উক্ত নীতিমালা জারির ৯০ দিনের মধ্যে বিটিআরসি কার্যালয়ে গ্রাহকদের জন্য একটি অভিযোগ কেন্দ্র খোলা হবে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 4,949 other subscribers

Comments