পরবর্তী প্রজন্মের “এক্সবক্স ওয়ান” কনসোল প্রকাশ করল মাইক্রোসফট

ডিভাইস ও সার্ভিস কোম্পানি মাইক্রোসফট তাদের জনপ্রিয় গেমিং কনসোল এক্সবক্স এর নতুন ভার্সন প্রকাশ করেছে। চলতি বছর আরও কয়েক মাসের মধ্যেই “এক্সবক্স ওয়ান” নামের এই সিস্টেম বিক্রি শুরু হবে। একই সাথে নতুন কাইনেক্ট সেন্সর এবং রিডিজাইনড গেইমপ্যাডও দেখানো হয়েছে।

ভয়েস ও জেশ্চার নিয়ন্ত্রিত এই মেশিনটিকে মাইক্রোসফট একটি “সর্বেসর্বা” বা “অল ইন অল” সিস্টেম বলে আখ্যা দিয়েছে। কেননা এতে গেমসের পাশাপাশি লাইভ টিভি, মুভি এবং মিউজিক সুবিধাও পাওয়া যাবে।

যদিও ইতোপূর্বে নতুন এক্সবক্সকে “অলওয়েস অনলাইন” সিস্টেম হিসেবে ব্যাখ্যা করা হচ্ছিল, তবে বাস্তবে এটিতে আসলে সব সময় ইন্টারনেট কানেকশন দরকার হবে না। আর সেকেন্ড হ্যান্ড গেমও চালাতে পারবে এক্সবক্স ওয়ান। এ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত তথ্য আগামী সপ্তাহগুলোতে জানা যাবে।

বিনোদনের জন্য “অল-ইন-ওয়ান” হবে এক্সবক্স ওয়ান

পরবর্তী প্রজন্মের এই গেমিং কনসোলে মাইক্রোসফট বেশ কিছু নতুন ফিচার যোগ করেছে। মেশিনটিতে ব্লু-রে ড্রাইভ ও স্কাইপ ফাংশনালিটি দেয়া হয়েছে। এছাড়া এর গেমপ্যাড ট্রিগারে ভাইব্রেটিং ফিডব্যাক সহ কাইনেক্ট ক্যামেরার রেস্যুলেশন ১০৮০পি হাই ডেফিনেশনে উন্নীত করেছে রেডমন্ড। কাইনেক্ট ব্যবহার করার সময় ডিভাইসটি আপনার হৃদস্পন্দন পর্যন্ত পাঠ করতে পারবে বলে দাবী করছে এর নির্মাতা কোম্পানি। এর বডি মুভমেন্ট ডিটেকশনও এখন আগের চেয়ে বেশি সঠিক হবে।

এক্সবক্স ওয়ানে নতুন কিছু টুলস যোগ করা হয়েছে যেগুলো গেম প্লে’র সময় ধারণকৃত ভিডিও এডিট ও আরও সহজে ইন্টারনেটে আপলোড করার সুবিধা দেবে। এটি এক্সবক্স ৩৬০ ভার্সনের চেয়ে চার গুণ বেশি ক্যালকুলেশন সম্পন্ন করতে পারবে। আর এর এনিমেশন প্রদর্শনের মান আগে চেয়ে ১০ গুণ ভাল হবে।

এক্সবক্স ওয়ান কনসোলের “নন-গেমিং” ফিচারগুলোর দিকে বিশেষভাবে নজর দিয়েছে মাইক্রোসফট। এতে আপনি ভয়েস কমান্ডের মাধ্যমেই লাইভ টিভি, অনলাইন মুভি, মিউজিক, ভিডিও কল ইত্যাদি সেবা উপভোগ করতে পারবেন। এর একাধিক বৈশিষ্ট্য একসাথে ব্যবহার করলেও ডিভাইসটির পারফর্মেন্সে কোন প্রকার অবনতি নজরে আসবে না! এতে ৮ কোর বিশিষ্ট এক্স৮৬ প্রসেসর এবং ৫ বিলিয়নের বেশি ট্রান্সিস্টর থাকবে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 4,085 other subscribers

Comments