এন্ড্রয়েড অ্যাপের নতুন ফিচার সবার আগে পাওয়ার উপায়

অধিকাংশ অ্যাপ এর নতুন কোনো ফিচার বা পরিবর্তন সরাসরি রিলিজ হওয়ার পূর্বে অনেকদিন ধরে তার বেটা বা বিটা (অর্থাৎ পরীক্ষামূলক) প্রোগ্রাম চালানো হয়। এই বিটা প্রোগ্রাম এর মাধ্যমে অ্যাপের নতুন কোনো ফিচার রিলিজ বা মুক্তির আগে ব্যবহার করা যাবে। বিভিন্ন অ্যাপ ডেভলপার এর পাশাপাশি গুগল এর অ্যাপগুলোর ও বিটা প্রোগ্রাম চলে। গুগল প্লে স্টোরে কোনো অ্যাপের নতুন কোনো ফিচার জনসাধারণের জন্য মুক্তির আগেই বেটা ইউজারদের কাছে চলে আসে।

তাই আপনি যদি কোনো অ্যাপের ভবিষ্যতের সুযোগ সুবিধা সবার আগেই আজ গ্রহণ করতে চান তাহলে বেটা প্রোগ্রামে যুক্ত হতে হবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক গুগল প্লে স্টোরে কোনো অ্যাপের বিটা প্রোগ্রামে কিভাবে জয়েন করবেন ও কোন কোন অ্যাপ এর বিটা প্রোগ্রাম রয়েছে, সে সম্পর্কে বিস্তারিত।  

বিটা বা বেটা প্রোগ্রামের সুবিধা-অসুবিধা কি?

বেটা প্রোগ্রামে জয়েন হওয়ার নিয়ম জানার আগে কোনো অ্যাপের বেটা প্রোগ্রামে জয়েন হয়ে কি লাভ সে সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

এই পোস্টের প্রথমদিকের লেখাগুলো পড়ে থাকলে নিশ্চয় ধারণা পেয়ে গিয়েছেন যে বিটা প্রোগ্রামের অসাধারণ সুবিধা রয়েছে। এমনকি গুগলের নিজস্ব অ্যাপগুলোরও বিটা প্রোগ্রাম চলে। এর মানে হলো যেকোনো অ্যান্ড্রয়েড ইউজার বেটা প্রোগ্রামে জয়েন করতে পারবেন ও নির্দিষ্ট ফিচার অ্যাপে মুক্তি পাওয়ার পূর্বেই তার অ্যাকসেস পেয়ে যাবেন।

যেমন ধরুন হোয়াটসঅ্যাপ বেটা প্রোগ্রামের ব্যবহারকারীরা সাধারন ব্যবহারকারীদের আগেই হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ রিয়্যাকশন, ২ জিবি ফাইল ট্রান্সফার, ভয়েস মেসেজ নতুন সুবিধা প্রভৃতি উপভোগ করতে পেরেছেন।

তবে এর মানে এই নয় যে প্রতিটি অ্যাপের সকল ফিচার আপনার হুশ উড়িয়ে দেওয়ার মত হবে। অধিকাংশ সময় আনরিলিজড ফিচারগুলো অ্যাপকে আগের চেয়ে উন্নত করার লক্ষ্যে অ্যাপে যুক্ত করার চিন্তা করা হয়। এবার অ্যাপ বিটা প্রোগ্রাম এর কিছু সমস্যা নিয়েও জেনে নেওয়া যাক।

অ্যাপ বিটা প্রোগ্রাম যেহেতু নতুন ফিচার টেস্টিং এর লক্ষ্যে চালানো হয়, তাই এসব অ্যাপে বাগ থাকতে পারে, যার কারণে অ্যাপ ভালোভাবে কাজ না করার প্রবণতা সৃষ্টি হয়। মূলত বিটা প্রোগ্রাম এর লক্ষ্যই কিন্তু এটি – সকলের কাছে অ্যাপের আপডেট পৌছে যাওয়ার আগে যথাসম্ভব অ্যাপকে ব্যবহারযোগ্য করে তোলা। আপনি যে অ্যাপের জন্য বেটা প্রোগ্রামে যুক্ত হবেন সেটার বেটা ভার্সন আপনার ফোনে ইনস্টল করা হবে। স্ট্যাবল ভার্সন অফিসিয়ালি আপনার ফোনে থাকবেনা।

বিটা প্রোগ্রামে জয়েন করার নিয়ম

প্রথমেই বলে রাখা ভালো, সকল অ্যাপের বিটা প্রোগ্রামে কিন্তু প্লে স্টোরের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করা যায়না। তবে ভালো ব্যাপার হলো গুগল এর নিজস্ব অ্যাপের বিটা প্রোগ্রামে যেকেউ প্লে স্টোরের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করতে পারে। অর্থাৎ যেকোনো অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস ব্যবহারকারী প্লে স্টোরের মাধ্যমে গুগল এর অ্যাপসমূহের বিটা প্রোগ্রামে জয়েন করতে পারবে। এই পোস্টের শেষের দিকে প্লে স্টোরে বিটা প্রোগ্রাম চলছে, এমন গুগল অ্যাপ এর তালিকা পেয়ে যাবেন।

প্লে স্টোরের মাধ্যমে কোনো অ্যাপের বিটা প্রোগ্রামে জয়েন করতে:

  • আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস হতে গুগল প্লে স্টোরে প্রবেশ করুন
  • এই পোস্টে আমরা গুগল অ্যাপসমূহের বিটা প্রোগ্রামে জয়েন করার উপায় জেনে নিবো, তাই Google লিখে সার্চ করুন
  • এরপর যেকোনো একটি গুগল অ্যাপ সিলেক্ট করুন
  • এরপর অ্যাপ পেজে স্ক্রল করে একদম নিচের দিকে গেলে Join the beta নামে একটি সেকশন দেখতে পাবেন
  • সবুজ Join বাটনে ট্যাপ করে বিটা প্রোগ্রামে জয়েন করুন
  • বিটা প্রোগ্রামে জয়েনের বিষয়টি নিশ্চিত করতে আবার Join অপশনে ট্যাপ করুন

বিটা প্রোগ্রামে জয়েন হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করার পর আপনার গুগল একাউন্ট বিটা প্রোগ্রামে যুক্ত হবে। এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে কয়েক মিনিট সময় লাগতে পারে। কখনোই বিটা প্রোগ্রামে Join অপশন ট্যাপ করার সাথে সাথে  বিটা প্রোগ্রামে জয়েন হয়ে যায়না, বরং এটি কিছুটা সময় নেয়। বিটা প্রোগ্রামে আপনার একাউন্ট এড হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর যদি উক্ত অ্যাপের কোনো নতুন বেটা ভার্সন থাকে তবে তা প্লে স্টোরে ওই অ্যাপের আপডেটের মাধ্যমে পেয়ে যাবেন ও ইন্সটল করতে পারবেন।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

এন্ড্রয়েড অ্যাপের নতুন ফিচার সবার আগে পাওয়ার উপায় - প্লে স্টোর বেটা

বিটা প্রোগ্রাম থেকে বের হওয়ার নিয়ম

আপনার প্রাত্যহিক ব্যবহারেরর অ্যাপের বিটা প্রোগ্রামে জয়েন হওয়ার পরে যদি অ্যাপে বিভিন্ন বাগ ও সমস্যা দেখা দেয়, তবে সেক্ষেত্রে অ্যাপের বিটা প্রোগ্রাম থেকে লিভ নিতে পারেন। কোনো অ্যাপের বিটা প্রোগ্রাম থেকে বের হতে:

  • প্লে স্টোরে প্রবেশ করুন
  • যে অ্যাপটির বিটা প্রোগ্রাম থেকে লিভ নিতে চান সেই অ্যাপটি সার্চের মাধ্যমে খুঁজে বের করুন
  • অ্যাপটি খুঁজে নিয়ে অ্যাপের উপর ট্যাপ করে অ্যপ পেজে প্রবেশ করুন
  • এরপর অ্যাপ পেজে একদম নিচের দিকে স্ক্রল করুন
  • বিটা প্রোগ্রাম থেকে লিভ নিতে অ্যাপ পেজের বিটা প্রোগ্রাম সেকশন থেকে Leave অপশন সিলেক্ট করুন
  • অ্যাপের বেটা প্রোগ্রাম লিভ নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে আবার Leave অপশনে ট্যাপ করুন

অ্যাপের বিটা প্রোগ্রামে জয়েন হতে যেমন কিছুটা সময় লাগে, তেমনি বিটা প্রোগ্রাম থেকে লিভ নিতেও কিছুটা সময় লাগে। 

👉 এন্ড্রয়েড ভক্তরা আইফোনের যে বিষয়গুলো অপছন্দ করেন

যেসব অ্যাপের বিটা প্রোগ্রাম চলছে

প্লে স্টোরে অসংখ্য অ্যাপের নিয়মিত বিটা প্রোগ্রাম চলে থাকে। এর মধ্যে অধিকাংশ অ্যাপ হলো গুগল এর, যার অধিকাংশ অ্যাপ অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে আগে থেকে ইন্সটল করে দেওয়া থাকে। গুগল এর যেসব অ্যাপের নিয়মিত বিটা প্রোগ্রাম চলে, সেসব অ্যাপ হলো:

  • Files by Google
  • YouTube
  • Gboard
  • Google Maps
  • Google app
  • Google Messages
  • Google Phone
  • Digital Wellbeing

ইতিমধ্যে হয়ত জেনে গিয়েছেন যে বেটা প্রোগ্রামের কারণে অ্যাপ কাজ না করার বা ক্র‍্যাশ করার সম্ভাবনা থাকে। তবুও নতুন ফিচার ও টুলসমূহ ব্যবহার যদি হয় আপনার ইচ্ছা, তবে উল্লেখিত অ্যাপসমূহের বেটা প্রোগ্রাম আপনাকে বেশ আনন্দ প্রদান করবে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,060 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.