এসএমএস’কে ছাড়িয়ে গেল অনলাইন মেসেজিং

smsহোয়াটস এপ এবং এজাতীয় অন্যান্য ইন্টারনেট নির্ভর মেসেজিং সেবা প্রচলিত টেক্সট মেসেজকে প্রথমবারের মত অতিক্রম করেছে। গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইনফরমা জানিয়েছে ২০১২ সালে চ্যাটিং এপ ব্যবহার করে প্রায় ১৯ বিলিয়ন মেসেজ সেন্ড করা হয়েছে। অপরদিকে উক্ত সময়ে এসএমএস পাঠানো হয় ১৭.৬ বিলিয়নের মত।

এই ধারা মোবাইল অপারেটরগুলোর জন্য একটি দুঃসংবাদ বলে বিবেচিত হতে পারে, কেননা ভয়েস কলের পাশপাশি অনেকেই টেক্সট মেসেজের মাধ্যমে যোগাযোগ রক্ষা করে থাকে। এছাড়া অন্য আরেকটি রিসার্স ফার্ম ওভামের হিসেব অনুযায়ী চ্যাটিং এপ্লিকেশনের জনপ্রিয়তার কারণে গত ২০১২ জুড়ে মোবাইল নেটওয়ার্ক কোম্পানিসমূহ প্রায় ২৩ বিলিয়ন ডলার এসএমএস বাবদ আয় হারিয়েছে।

তবে… এত সহজে হারিয়ে যাচ্ছেনা এসএমএস!

আগামী বছরগুলোতে অনলাইন মেসেজিংয়ের জনপ্রিয়তা আরও বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করছে ইনফরমা। প্রতিষ্ঠানটি পূর্বাভাস দিচ্ছে যে, ২০১৪ সালে প্রতিদিন ৫০ বিলিয়নের কাছাকাছি চ্যাট মেসেজ আদান-প্রদান হবে এবং একই সময়ে সাধারণ এসএমএসের পরিমাণ দাঁড়াবে ২১ বিলিয়ন।

তবে ইনফরমা স্বীকার করছে, এসএসএস এবং এপ নির্ভর মেসেজিং এর মধ্যে সংখ্যাগত পার্থক্য বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলেও এই খাতে টেক্সট মেসেজ সব সময়ই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলবে।

প্রধানত স্মার্টফোনেই বেশিরভাগ চ্যাট এপ ব্যবহৃত হয়ে থাকে। আর উন্নয়নশীল ও স্বল্পোন্নত দেশগুলোতে এখনও অনেক ভোক্তা রয়েছেন যারা ফিচার ফোন ব্যবহার করেন এবং এক্ষেত্রে টেক্সট মেসেজ একটি জনপ্রিয় যোগাযোগ মাধ্যম। অপরদিকে সাম্প্রতিককালে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহ তাদের বিপণনের কাজেও এসএমএস মার্কেটিংয়ের দিকে ঝুঁকছে যেখানে ক্রেতাদের কাছে তথ্য পৌঁছাতে সাধারণ মোবাইল ফোন সেটই যথেষ্ট।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 2,963 other subscribers

Comments