অ্যাপল বনাম স্যামসাং পেটেন্ট লড়াইঃ বিলিয়ন ডলার জরিমানায় ৪০ শতাংশ হ্রাস!

AppleSamsungস্যামসাং এবং অ্যাপলের মধ্যে গত বছর সংঘটিত হওয়া পেটেন্ট ট্রায়ালে যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালত দক্ষিণ কোরীয় কোম্পানিটিকে ১.০৫ বিলিয়ন ডলার জরিমানা করেছিলেন। কিন্তু স্যামসাং সেই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করলে এক পর্যায়ে গতকাল শুক্রবার কোর্ট পূর্বে ধার্য্যকৃত জরিমানার ৪০ শতাংশের বেশি কমিয়ে দিয়েছেন। সর্বশেষ আইনী প্রক্রিয়া অনুযায়ী এই ক্ষতিপূরণের পরিমাণ হচ্ছে ৫৯৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

উক্ত রায়ে স্যামসাং তাদের প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করতে গিয়ে বলেছে, কোর্ট জরিমানা কমানো সঙ্ক্রান্ত যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাতে তারা সন্তুষ্ট এবং ক্ষতিপূরণের বাকী অংশ নিয়েও পরবর্তীতে অনুসন্ধান চালানোর ইচ্ছা পোষণ করে গ্যালাক্সি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজী হয়নি অ্যাপল।

যুক্তরাষ্ট্র জেলা জজ আদালতের বিচারক লুচি কো কর্তৃক ঘোষিত গতকালের রায়ে অ্যাপল এবং স্যামসাংয়ের মধ্যে আবারও একটি ট্রায়াল অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভবনা দেখা দিয়েছে। কেননা যে পরিমাণ জরিমানা হ্রাস করা হয়েছে এর কত অংশ কোন ডিভাইসের জন্য সেসব বিষয় এখনও স্পষ্ট হয়নি।

২০১২ সালের রায়ে যে ১.০৫ বিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ ধরা হয় সেখানে গণনায় ভুল ছিল বলে উল্লেখ করে বিচারক লুচি কো। এক্ষেত্রে প্রধান দুটি ইস্যু ছিল স্যামসাংয়ের পুরো মুনাফার ওপর জরিমানা হিসেব করা এবং জরিমানা নির্ণয়ে সঠিক সময়কাল নির্বাচনে ব্যর্থ হওয়া।

এই মুহুর্তে অ্যাপল বনাম স্যামসাং পেটেন্ট ট্রায়াল একটি জটিল আকার ধারণ করেছে। পরবর্তী বিচার বিশ্লেষণে বর্তমানে জারি করা ক্ষতিপূরণে আরও পরিবর্তন আসতে পারে। আর এই লড়াই সহসাই শেষ হচ্ছে না বলে অভিমত জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,069 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.