চালু হল বিশ্বের সবচেয়ে বড় সৌরবিদ্যুত কেন্দ্র

ক্যালিফোর্নিয়ার মোজেইভ মরুভূমিতে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করল বিশ্বের সর্ববৃহৎ সৌরশক্তি চালিত বিদ্যুৎ কেন্দ্র। কয়েক বছর ধরে পরীক্ষা-নীরিক্ষার পর ১৩ই ফেব্রুয়ারি প্ল্যান্টটি অফিসিয়ালি লঞ্চ করেছে। ইভানপাহ সোলার ইলেকট্রিক জেনারেটিং সিস্টেম নামের এই বিদ্যুৎকেন্দ্রের যৌথ মালিক হচ্ছে এনআরজি এনার্জি, ব্রাইটসোর্স এনার্জি ও গুগল। যুক্তরাষ্ট্রের সকল সৌরতাপবিদ্যুত কেন্দ্রে উৎপাদিত মোট বিদ্যুতের প্রায় ৩০ শতাংশই নতুন এই প্ল্যান্ট থেকে আসবে বলে জানা যাচ্ছে।

ইভানপাহ সোলার সিস্টেমে তিনটি ৪৫৯ ফুট উঁচু টাওয়ার রয়েছে যেগুলো ঘিরে দশ হাজার করে রোবোটিক গ্যারেজ-ডোর সাইজের দর্পণ (আয়না) বসানো আছে।

এই আয়নাগুলো থেকে সূর্যের আলো প্রতিফলিত হয়ে সংশ্লিষ্ট টাওয়ারের উপরে থাকা ওয়াটার বয়লারে (পানির ট্যাঙ্ক, যেখানে তাপ দিয়ে পানিকে বাষ্পে পরিণত করা যায়) পতিত হয় ও সেখানে তাপ শক্তিকে যান্ত্রিক শক্তিতে রূপান্তরিত করার পর তা থেকে বিদ্যুৎ উৎপন্ন হয়।

এনআরজি বলছে, এই প্ল্যান্টের আয়তন প্রায় ৫.৫ বর্গমাইল যা এ ধরণের বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ক্ষেত্রে বিশ্বের সর্ববৃহৎ। এখান থেকে ক্যালিফোর্নিয়ার ১৪০,০০০ বাসাবাড়িতে বিদ্যুৎ সরবরাহ দেয়া হবে।

ইভানপাহ মালিকপক্ষ দাবী করছে, সদ্য লঞ্চকৃত বিদ্যুৎকেন্দ্রটি (পরিবেশের কোনও ব্যাঘাত না ঘটিয়ে) ‘ক্লিন এনার্জি’ দিতে সক্ষম হবে।

যদিও, ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানাচ্ছে, প্ল্যান্টে ব্যবহৃত দর্পণের প্রতিফলিত আলোর কারণে ঐ এলাকায় যাতায়াত করা পাখীদের গতিপথ পরিবর্তন করতে হয়েছে।

এছাড়া সিস্টেমটি নির্মাণের সময় স্থানীয় সংরক্ষিত কচ্ছপদেরকেও অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.