আত্নঘাতী ‘ভ্যানিশিং টেকনোলজি’ নিয়ে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্র

যুক্তরাষ্ট্রের সশস্ত্র বাহিনী নতুন এক প্রযুক্তিতে বিনিয়োগ শুরু করেছে যার মাধ্যমে এমন ইলেকট্রনিক যন্ত্র তৈরি করা যাবে যেগুলো কাজ শেষে নিজেরাই নিজেদের ধ্বংস করে দেবে। অনেকটা টিভি শো ‘মিশন ইমপসিবল’ এর মতই যেখানে এভাবেই গোপন বার্তা নিশ্চিহ্ন করা হত।

ইউএস অ্যাডভান্সড রিসার্স প্রজেক্টস এজেন্সি, যা সংক্ষেপে দার্পা নামে পরিচিত, সেই সংস্থাটি কম্পিউটিং জায়ান্ট আইবিএমের সাথে ৩.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের চুক্তি করেছে। ভ্যানিশিং প্রোগ্রামেবল রিসোর্সেস (ভিএপিআর) নামক এই প্রকল্পের আওতায় ‘ক্ষণস্থায়ী’ ইলেকট্রনিক মেশিন বানান হবে যেগুলো রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে ধ্বংস করা সম্ভব হবে।

এসব যন্ত্র যুদ্ধক্ষেত্রে ব্যবহৃত হবে। প্রাথমিক কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী, আত্নঘাতী ইলেকট্রনিকসগুলো রেডিও ফ্রিকোয়েন্সির সাহায্যে নিয়ন্ত্রিত হতে পারবে। কমান্ড দেয়া মাত্রই এরা পাউডারের মত ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে।

ভিএপিআর প্রজেক্টের মাধ্যমে তৈরি গেজেটসমূহ মূলত যুদ্ধক্ষেত্রের প্রয়োজনীয় বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহের কাজে ব্যবহৃত হবে। এগুলো বিশাল নেটওয়ার্কের সাথে সংযুক্ত থাকবে ও অনেকগুলো সেন্সর সমৃদ্ধ হবে। তথ্য আদানপ্রদান শেষে শত্রুপক্ষের হাতে পড়ার আগেই যন্ত্রগুলো তাৎক্ষণিকভাবে ধ্বংস করে দেয়া হবে।

অবশ্য, একই ধারণা চিকিৎসাক্ষেত্রেও কাজে আসতে পারে বলে বিশ্বাস করে দার্পা। মানবদেহের অভ্যন্তরে সাময়িক প্রয়োজনীয় ইমপ্ল্যান্ট বা ছোট যন্ত্র স্থাপন করে কাজ শেষে শরীরে মাধ্যমেই সেটি শোষণ করিয়ে নিতে পারলে চিকিৎসা পদ্ধতি আরও সহজ হতে পারে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,818 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.