এই পুরোনো আইফোন মডেলের জন্য দুঃসংবাদ দিলো অ্যাপল

বিশ্বব্যাপী অ্যাপল পণ্যের সুনামের পাশাপাশি তাদের বিক্রয়োত্তর সেবাও সমান ভাবে সমাদৃত। যেসব স্থানে অ্যাপল স্টোর আছে মানুষজন নিজের অ্যাপল পণ্যের জন্য সেখান থেকে সহজেই সেবা নিতে পারে। অ্যাপল তাদের আইফোনের জন্য সর্বোচ্চ ৭ বছর পর্যন্ত হার্ডওয়্যার সংক্রান্ত আপডেট দিয়ে থাকে। আর সফটওয়্যারের ক্ষেত্রে ১০ বছর পর্যন্ত সাপোর্ট পেতে পারে একটি আইফোন।

সাধারণত, অ্যাপল তাদের অপারেটিং সিস্টেমের সর্বেশষ তিন ভার্সনে সবচেয়ে বেশি সফটওয়্যার আপডেট এবং সিক্যুরিটি ফিক্স দিয়ে থাকে। তার মানে আপনি যদি আইফোন ৬এস বা তার পরে মুক্তি পাওয়া কোনো আইফোন কিনে থাকেন তাহলে আইওএস আপডেট ও অফিসিয়াল হার্ডওয়্যার প্রাপ্তি নিয়ে খুব একটা চিন্তা করতে হবেনা। বর্তমানে আইওএস ১৩ পর্যন্ত আইওএস আপডেট দিচ্ছে অ্যাপল।

কিন্তু আপনি যদি এমন একটি আইফোন কিনে থাকেন যেটি ৫ বছরের বেশি সময় আগে অফিসিয়ালি বিক্রি হয়েছিল, সেক্ষেত্রে আপনার চিন্তার কারণ থাকতে পারে। আপনি হয়ত দোকান থেকে নতুন ইনট্যাক্ট আইফোন কিনেছেন, কিন্তু সেটি যদি অ্যাপল অনেক আগে সরবরাহ বন্ধ করে থাকে তাহলে আপনার এটা কেনার আগে আরেকবার ভেবে দেখা উচিত।

অ্যাপল সব কিছুতেই বেশ গোছানো। তারা নিজেদের পণ্যের সাপোর্ট প্রাপ্তির একটা তালিকা করে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দেয়। এই তালিকায় সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ২টি ক্যাটাগরি থাকে।

একটি হচ্ছে “ভিন্টেজ”। অপরটি “অবসোলিট”। কোনো পণ্য যদি ভিন্টেজ তালিকায় চলে আসে তাহলে আপনার বুঝে নেয়া উচিত যে পণ্যটির জন্য অ্যাপলের কাছ থেকে আর হয়ত সাহায্য পাওয়া যাবেনা। ক্ষেত্র বিশেষ হার্ডওয়্যার পেলেও অন্তত অনিশ্চয়তা একটা থেকে যাচ্ছে।

সম্প্রতি অ্যাপল তাদের আইফোন ৬ প্লাস মডেলকে ভিন্টেজ ক্যাটাগরিতে তালিকাভুক্ত করে দিয়েছে। আপনি যদি একজন আইফোন ৬ প্লাস ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তাহলে এটা আপনার জন্য একটা চিন্তার বিষয় হতে যাচ্ছে।

কিন্তু ভিন্টেজ তালিকাভুক্ত একটি আইফোন ব্যবহার করলে কী এমন সমস্যা হতে পারে? তা জানার আগে চলুন জেনে নিই ভিন্টেজ ও অবসোলিট ক্যাটাগরিদুটো সম্পর্কে।

অ্যাপল যখন একটি পণ্য উৎপাদন ও বিক্রি বন্ধ করে দেয় তার ৫ থেকে ৭ বছরের মধ্যে ঐ পণ্যটি একটি ভিন্টেজ পণ্য হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়ে যায়। অফিসিয়ালি বিক্রি বন্ধের ৭ বছর পর একটি অ্যাপল প্রোডাক্ট অবসোলিট লিস্টে যুক্ত হয়ে যায়।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

একটি অ্যাপল পণ্য ভিন্টেজ তালিকায় যুক্ত হওয়ার মানে হচ্ছে, এটি আর ১ থেকে সর্বোচ্চ ২ বছর অ্যাপলের কাছ থেকে হার্ডওয়্যার সাপোর্ট পাবে, তাও আবার পার্টসের প্রাপ্যতার ভিত্তিতে। ভিন্টেজ প্রোডাক্টগুলো সাধারণত কোনো সফটওয়্যার আপডেট পায়না।

কোনো অ্যাপল পণ্য অফিসিয়ালি বিক্রি বন্ধ হওয়ার ৭ বছর পরে সেটি অবসোলিট তালিকায় চলে যায়। এর মানে হচ্ছে এটি অ্যাপলের কাছ থেকে আর কোনো সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যার সংক্রান্ত সাপোর্ট পাবেনা।

আপনি যদি একটি আইফোন ৬ প্লাস ব্যবহার করেন তাহলে সেটি এর পরেও চলতে থাকবে। ভয় পাওয়ার কিছু নেই যে আইফোনটি বন্ধ হয়ে যাবে কিনা। ভিন্টেজ লিস্টে যুক্ত হওয়ার মানে হচ্ছে আপনার আইওএস আপডেট পাওয়ার আশা প্রায় ছেড়ে দিতে হবে।

এই পুরোনো আইফোন মডেলের জন্য দুঃসংবাদ দিলো অ্যাপল

আইফোন ৬ এবং ৬ প্লাস সর্বশেষ আইওএস আপডেট পেয়েছিল ২০১৯ সালে। এগুলো আইওএস ১২ পর্যন্ত আপডেট পেয়েছে। তাই খুব মারাত্নক কোনো সিক্যুরিটি বাগ ধরা না পড়লে আইফোন ৬, ৬ প্লাস ও এর চেয়ে আগের মডেলে আর কোনো আইওএস আপডেট পাওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

এ তো গেলো সফটওয়্যারের কথা। আপনার আইফোন ৬ প্লাস যদি অফিসিয়াল সার্ভিস সেন্টার থেকে টাকা দিয়ে ঠিক করাতে চান, সেক্ষেত্রে অ্যাপলের কাছে পার্টস থাকার ভিত্তিতে সেটি রিপেয়ার করে দেবে অ্যাপল। অর্থাৎ, আপনার আইফোনের কোনো পার্টস নষ্ট হয়ে গেলে অ্যাপল এখন সেটা ঠিক করে দিবে কিনা সেটা পার্টসের সরবরাহ থাকার উপর নির্ভর করছে। সুতরাং এখানে একটা অনিশ্চয়তা তৈরি হয়ে গেলো।

আইফোন ৬ এবং ৬ প্লাস প্রথমে ২০১৪ সালে লঞ্চ করেছিল অ্যাপল। এরপর ২০১৭ সালে আইফোন ৬ পুনরায় লঞ্চ করে কোম্পানিটি, যা ২০১৮ পর্যন্ত বিক্রি হয়। তাই আইফোন ৬ ভিন্টেজ হতে এখনো কমপক্ষে ২ বছর বাকি আছে।

অবশ্য অ্যাপল অন্যান্য কোম্পানির তুলনায় নিজেদের পণ্য বেশ ভাল পরিমাণ সময়ই সাপোর্ট করে থাকে। তাই বিক্রি বন্ধ হওয়ার ৭ বছর পরও অফিসিয়াল সফটওয়্যার আপডেট ও পার্টস রিপ্লেসমেন্ট আশা না করাই ভাল!

এছাড়া সফটওয়্যার আপডেট না পেলে ফোনে নিরাপত্তা সংক্রান্ত ঝুঁকি দেখা দেয়। তাই ফোন কেনার আগে জেনে নিন যে এটি আগামী কতদিন সফটওয়্যার আপডেট পাবে। অ্যাপলের ভিন্টেজ ও অবসোলিট পণ্যের তালিকা দেখতে এই লিংকে ক্লিক করুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,403 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.