অ্যাপল ‘আই ওয়াচের সাথে পাল্লা দিতে স্যামসাং আনছে স্মার্ট ওয়াচ’

alti_2482386b

দক্ষিণ কোরিয়ার ইলেকট্রনিক পণ্য নির্মাতা স্যামসাং প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাপলের “আই ওয়াচ” এর সাথে পাল্লা দেয়ার জন্য “স্মার্ট ওয়াচ” তৈরি করতে যাচ্ছে। অফিসিয়াল কোন নিশ্চিতকরণ না এলেও বিভিন্ন প্রযুক্তি সংবাদ সংস্থা কিছু ফাঁস হওয়া স্ক্রিনশটের ভিত্তিতে এটাই মনে করছে। স্যামসাংয়ের নিজ দেশীয় একটি মেসেজবোর্ডে উক্ত স্মার্ড ঘড়ির মনিটরের কিছু গ্রাফিক্স হিন্টস পাওয়া গিয়েছে যা জানান দিচ্ছে নতুন হাতে পরার ডিভাইস যুগের সূচনা শুধু অ্যাপলের দখলেই যাবেনা, বরং স্যামসাংও এতে ভাগ বসাতে বদ্ধপরিকর।

লিক হওয়া স্ক্রিনশটগুলোর একটিতে দেখা যায় গেজেটটির নাম হবে স্যামসাং অ্যাল্টিয়াস। অন্য দুটি ডিসপ্লের প্রথমটি কিছুটা “হোমপেজ” এর মত মনে হয় যেখানে মিডিয়া প্লেয়ার, ম্যাসেজিং ফিচার, ঘড়ি টাইলস আকারে উস্থাপন করা হয়েছে। একই স্ক্রিনে আরও একটি আইকন দেখা যায়, হতে পারে সেটি কন্টাক্টস বা অন্যকোন অপশন।

তৃতীয় স্ক্রিনশট আইডল মুডে “স্ক্রিনসেভার” এর মত। এখানে সময়, তারিখ এবং নিচের দিকে কোরিয়ান (খুব সম্ভবত) ভাষায় একলাইনে কিছু নোট লেখা আছে।

শুধুমাত্র ছবি দেখে অপারেটিং সিস্টেম অনুমান করা কঠিন হলেও স্যামসাংয়ের যে আগে থেকেই গুগল এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমপ্রীতি আছে সেই দৃষ্টিকোণ থেকে ধরে নেয়া যায় “স্মার্ট ওয়াচ” এন্ড্রয়েড নির্ভরই  হতে পারে। তবে হোমপেজে টাইলসগুলোর ইন্টারফেস অনেকটাই মাইক্রোসফট উইন্ডোজ ফোন ওএস এর অনুরূপ। অপরদিকে এন্ড্রয়েড ফ্রি এবং উইন্ডোজ লাইসেন্স পণ্য হওয়ায় প্রতিযোগিতার বাজারে স্মার্টওয়াচে এন্ড্রয়েড দেখলে মোটেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

গত কয়েক সপ্তাহ যাবত বেশ জোরেশোরেই অ্যাপল আইওয়াচের গুজবে মেতে আছে প্রযুক্তি বিশ্ব। কোন কোন বিশ্লেষকের মতে অ্যাপল এই পণ্যটি তৈরি করার জন্য ১০০ ইঞ্জিনিয়ার সংবলিত একটি এক্সপার্ট টিম নিয়োগ দিয়েছে।

প্রতিদিনকার ব্যস্ত জীবনে দিন দিন পরিধানযোগ্য ডিভাইস যেন অপরিহার্য হতে চলেছে, যাতে প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি যখন ইচ্ছে পাওয়া যায়। এই ধারণা থেকে গুগল, মাইক্রোসফট ও আরও কিছু কোম্পানি তৈরি করছে চোখে পরার স্মার্ট গ্লাস। তবে সেগুলো ব্যবহার করতে চাইলে আমাদের আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 4,804 other subscribers

Comments