মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাচ্ছে মাইক্রোসফট সার্ফেস প্রোঃ ভবিষ্যৎ কি?

microsoft-surface-pro-windows-8-tbalet-0

সফটওয়্যার নির্মাতা মাইক্রোসফটের নতুন পণ্য সার্ফেস প্রো ব্যবহারকারীদের কাছে থেকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেতে শুরু করেছে। যেসব প্রযুকি বিষয়ক লেখক, ব্লগার এবং অন্যান্য সবাই, যারা উইন্ডোজ ৮ প্রো চালিত এই ট্যাবলেটটি পরখ করে দেখেছেন তাদের মধ্যে একটা বড় অংশের মন্তব্যই ছিল নেতিবাচক, যা কিনা মাইক্রোসটের আইপ্যাড টেক্কা দেয়ার আকাঙ্ক্ষাকে একটু ধূসর করে দিয়েছে। তবে সার্ফেস প্রো নিয়ে বেশ আশা জাগানিয়া রিভিউ (বিশেষ করে সফটওয়ার, ডিসপ্লে, পারফর্মেন্স এবং ইকোসিস্টেম) এর সংখ্যাও নেহায়েত কম নয়।

উইন্ডোজ ডেভলপার মার্কিন কোম্পানিটি তাদের ট্যাবলেট ডিভাইসের দুটি সংস্করণ বাজারে ছেড়েছে। একটি হচ্ছে “সার্ফেস আরটি”, যা এআরএম চিপ ব্যবহার করে এবং এতে শুধুমাত্র নতুন ধরণের বিশেষ উইন্ডোজ এইট স্টাইলের (পূর্বনাম মেট্রো) এপ্লিকেশন চলে। আরটি সার্ফেসের দাম ৫৯৯ ডলার থেকে শুরু।

সরাসরি ডেস্কটপ ভিত্তিক উইন্ডোজ ওএস লোড করা সার্ফেস প্রো এর সর্বনিম্ন দাম ৮৯৯ ডলার। এটি কিনতে অ্যাপল আইপ্যাডের চেয়ে ২০০ ডলার বেশি এবং ম্যাকবুক এয়ারের চেয়ে মাত্র ১০০ ডলার কম খরচ হবে। অপেক্ষাকৃত পুরু, এবং ভারী সার্ফেস প্রো’কে ল্যাপটপ এবং ট্যাবলেটের হাইব্রিড বললে মোটেই অত্যুক্তি হবে না।

৬৪ এবং ১২৮ গিগাবাইট উভয় মডেলেই কানেক্টিভিটি হিসেবে আপনি পাবেন কেবল মাত্র ওয়াইফাই। এর সাথে আলাদা বিশেষ কি-বোর্ড কিনতে চাইলে পকেট থেকে চলে যাবে আরও ১২০ ডলার।

মাইক্রোসফটের দাবী অনুযায়ী সার্ফেস হচ্ছে প্রথম ডিভাইস যা একটি সম্পুর্ণ অপারেটিং সিস্টেমকে মানের দিক থেকে কোন প্রকার আপোষ না করেই ট্যাবলেট ফরম্যাটে নিয়ে এসেছে। কিন্তু কোন কোন প্রতিক্রিয়াকারীর মতে গেজেটটিতে বেশ কিছু সমস্যা থেকে গিয়েছে এবং এটি ট্যাবলেট ও পিসির মাঝামাঝি অস্বচ্ছন্দকর একটি যন্ত্র।

ডেস্কটপে ব্যবহার করা যায় এমন সকল সফটওয়্যার ভালভাবে চালানো গেলেও সার্ফেস প্রো’র ব্যাটারি ব্যাকআপ হতাশাজনক। এটি স্ট্যান্ডার্ড ব্যাটারি টেস্টের ক্ষেত্রে চার ঘন্টারও কম ব্যপ্তিকাল প্রদর্শন করেছে যা অ্যাপল আইপ্যাডকে এগিয়ে রেখেছে। এছাড়া ৬৪ গিগাবাইট ভার্সনের ব্যবহারযোগ্য মেমোরি নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন কেউ কেউ।

সবদিক বিবেচনা করে অনেকেই সার্ফেস প্রো না কিনে সার্ফেস আরটি  কেনার পরামর্শ দিচ্ছেন, কেননা সেটি অপেক্ষাকৃত কম ব্যয়বহুল এবং হালকা। তবে স্পিড ও পারফর্মেন্সের বিষয়টি মাথায় রাখলে একটু কম ব্যাটারি লাইফেও সার্ফেস প্রো হতে পারে আপনার আদর্শ মোবাইল কম্পিউটার।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,633 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.