এক চার্জে এক সপ্তাহ চলবে এই স্মার্টফোন (২২০০০ mAh ব্যাটারি)

স্লিম ফোন কেমন দেখতে হয় সে কথা তো সবার জানা। তবে Oukitel WP33 Pro 5G ফোনটি স্লিম ফোনের সম্পূর্ণ বিপরীত দিকে অবস্থান করছে। মাথানষ্ট ২২,০০০ মিলিএম্প ব্যাটারির এই ফোনের ওজনই ৫৭৭.৫ গ্রাম অর্থাৎ এক কেজির অর্ধেকেরও বেশি। এই ফোনটি পকেটে নিলে ভুলে যাওয়া সম্ভবই নয় যে এটি আপনার পকেটে রয়েছে৷ চলুন আরো জানি এই বিশালদেহী ফোনটি সম্পর্কে বিস্তারিত।

Oukitel WP33 Pro ফোনটি ৮৪ মিলিমিটার ওয়াইড, যার মানে হলো এক হাতে ধরে এই ফোনটি অপারেট করা যে কারো জন্যই অসম্ভব। তবে হাইট এর দিক দিয়ে ১৭৫.৪ মিলিমিটার থাকায় অন্তত একদিকে এই ফোনটির অন্যান্য ফোন এর সাথে মিল আছে বলা চলে।

মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৬১০০+ চিপসেট দ্বারা চালিত এই ফোনটিতে ৮ জিবি এলপিডিডিআর৪এক্স র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি ইউএফএস ২.২ স্টোরেজ থাকছে। ডিভাইসটির ৬.৬ ইঞ্চি ১০৮০x২৪০৮ আইপিএস প্যানেল এর ডিসপ্লেতে ৬০ হার্জ রিফ্রেশ রেট ও ৪৫০-নিট ব্রাইটনেস থাকছে। গরিলা গ্লাস ৫ এর প্রটেকশন থাকছে এই ফোনের ডিসপ্লেতে।

Oukitel WP33 Pro ফোনটিতে ৬৪ মেগাপিক্সেল সনি আইএমএক্স৬৮৬ এফ১/১.৭৩ ইঞ্চি সেন্সর থাকছে যাতে এফ/১.৮৯ এপার্চার ও এলইডি ফ্ল্যাশ রয়েছে। এর পাশাপাশি ২০ মেগাপিক্সেল নাইট ভিশন ক্যামেরা রয়েছে যা আইএমএক্স৩৫০ সেন্সর ও এফ১/১.৭৮ এপার্চার এর। রয়েছে একটি ২ মেগাপিক্সেল BYD এর ম্যাক্রো ক্যামেরা যা মূলত ইলেক্ট্রিক কারগুলোতে দেখা যায়। ৩২ মেগাপিক্সেল সনি আইএমএক্স৬১৬ সেন্সর রয়েছে ফোনটির ফ্রন্টে যা সেল্ফি ও ভিডিও কল এর কাজে ব্যবহার হবে।

ক্যামেরাতে থাকা কোনো ফিচার আহামরি মনে না হলেও যা অসাধারণ এখানে তা হলো মাথানষ্ট ৫ওয়াট স্পিকার, যার ব্যাস ৩৬ মিলিমিটার ও ১৩৬ডিবি ম্যাক্সিমাম লাউডনেসে সাউন্ড প্রডিউস করতে পারে। অকিটেল প্রদত্ত তথ্যমতে আইফোন ১৫ এর স্পিকার সর্বোচ্চ লাউডনেস ৯৪ডিবি, এলার্ম সাইরেন এর ক্ষেত্রে ১০৯ডিবি, আউটডোর স্পিকার এর ক্ষেত্রে ১১৬ডিবি, যেখানে জেট ইঞ্জিন ১২০ডিবি সাউন্ড প্রডিউস করে।

Oukitel WP33 Pro 5G

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

অর্থাৎ বুঝতেই পারছেন Oukitel WP33 Pro ফোনটির লাউডনেস উল্লেখিত ডিভাইসগুলোর চেয়েও বেশি। এছাড়া এখানে “8D Immersive Stereo Surround” আছেও বলেছে অকিটেল, কিন্তু এর আসলেই কাজ কি সে সম্পর্কে জানা মুশকিল।

Oukitel WP33 Pro ফোনটিতে ৩৩ওয়াট ফাস্ট চার্জিং তো থাকছে, কিন্তু এর বিশাল ব্যাটারিকে শূন্য থেকে ১০০% চার্জ করতে প্রায় ৫ ঘন্টা সময় লাগবে। আবার এখানে ১৮ ওয়াট রিভার্স ওয়্যারড চার্জিং ফিচারও রয়েছে এই ফোনে যা দ্বারা এই বিশাল ব্যাটারির কল্যাণে অন্যান্য ডিভাইসও চার্জ করা যাবে। আইপি৬৮ ডাস্ট ও ওয়াটার রেসিস্ট্যান্স সাপোর্ট রয়েছে এই ফোনে।

আইপি৬৯কে সার্টিফিকেশনও রয়েছে এই ফোনে যা হাই-প্রেসার ওয়াটার জেট এর বিপরীতেও ঠিকে থাকবে। আবার MIL-STD-810H সার্টিফিকেশন রয়েছে এই ফোনে যা ১.৫মিলিমিটার পানির নিচেও ফোনটিকে রক্ষা করবে। ফোনটির সাইডে রয়েছে সাইড মাউন্টেড ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর। এন্ড্রয়েড ১৩ দ্বারা চলবে এই ফোন।

👉 স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ বৃদ্ধির অজানা কিছু কৌশল

Oukitel WP33 Pro ফোনটি আলিএক্সপ্রেসে পাওয়া যাবে Oukitel এর অফিসিয়াল স্টোরে। ২২,০০০ মিলিএম্প ব্যাটারি ও বিশাল স্পিকারের এই ফোনটি পাওয়া যাবে ৫০০ ডলার দামে পাওয়া যাচ্ছে কুপন ও ডিসকাউন্ট ছাড়া।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,585 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *