গুগল কি-ওয়ার্ড এডভার্টাইজিংয়ে শুধুই অর্থ অপচয়?

google-adwords (1)অকসন সাইট ইবে সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে গুগল কিওয়ার্ড এডভার্টাইজিংয়ের কার্যকরিতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। কোম্পানিটি উক্ত সেবা ব্যবহারকে অর্থ অপচয় হিসেবে ব্যাখ্যা দিয়েছে। অথচ এই খাতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহ বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার ব্যয় করে যাচ্ছে। শুধুমাত্র যুক্তরাজ্যেই বছরে প্রায় তিন বিলিয়ন পাউন্ড খরচ করা হচ্ছে কিওয়ার্ড বিজ্ঞাপনে যার ৯০ শতাংশের বেশি যায় গুগলের পকেটে। আর ২০১১ সালে যুক্তরাষ্ট্রে বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রায় ৩৭ বিলিয়ন ডলার তুলে নেয় সার্চ কোম্পানিটি।

বিশ্বের সবচেয়ে বহুল ব্যবহৃত সার্চ ইঞ্জিন গুগল বিজ্ঞাপনদাতাদের প্রভাবিত করে এমনভাবে তাদের সিস্টেম ডেভলপ করেছে যার মাধ্যমে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহ অর্থের বিনিময়ে নির্দিষ্ট কিছু কিওয়ার্ড কিনে নিতে পারে। এরপর আরো কিছু শর্তসাপেক্ষে উক্ত কিওয়ার্ড সংবলিত সার্চ ফলাফলে ওয়েবপেজের নির্দিষ্ট স্থানে ক্লায়েন্ট সাইটের লিঙ্ক প্রদর্শিত হয়ে থাকে।

ইবে’র প্রতিবেদন অনুযায়ী, যেসব ব্র্যান্ড তাদের নিজেদের নামে কিওয়ার্ড কিনে থাকে তারা এ থেকে সাধারণ সার্চ লিস্টিং এর তুলনায় তেমন কোন উল্লেখযোগ্য ফলাফল পায় না। উক্ত সেবা পণ্য বিক্রিতেও আশানুরূপ ভূমিকা রাখে না বলেই প্রতিবেদনে প্রকাশ করা হয়েছে।

২৫ পৃষ্ঠার ঐ রিপোর্টে গবেষকদের পর্যবেক্ষণে দেখা গিয়েছে, সাধারণত বিজ্ঞাপনের তুলনায় ব্যবহারকারীরা ফ্রি সার্চ রেজাল্টগুলোতেই বেশি ক্লিক করে থাকে। এক্ষেত্রে কোম্পানি বা ওয়েবসাইটের সুনাম কাজে দেয়। ফলে কিওয়ার্ড এডভার্টাইজিং খুব একটা সুফল দিতে পারে না।

“সেল ফোন” বা এধরণের নন-ব্র্যান্ড কিওয়ার্ডের পেছনে অর্থ ব্যয়কে আরও অনর্থক বলে দাবি করেছে ইবে’র গবেষণাপত্র।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,398 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.