আবিষ্কৃত হল গুগল স্বয়ংক্রিয় গাড়ির সুলভ বিকল্প রোবটকার ইউকে !

roborcar ukঅক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক নতুন এক প্রযুক্তি আবিষ্কার করেছেন যা গাড়িতে ব্যবহার করলে চালক ছাড়াও সেটি চলতে পারবে। ওয়েব জায়ান্ট গুগল অবশ্য ইতোমধ্যেই চালক বিহীন গাড়ি রাস্তায় নামিয়ে ব্যাপক হইচই ফেলে দিয়েছে, কিন্তু ইন্টারনেট ফার্মটির সেই প্রযুক্তি অনেক ব্যয়বহুল (প্রায় ১৫০,০০০ ডলার);

সম্প্রতি আবিষ্কৃত রোবটকার ইউকে গুগলের স্বয়ংক্রিয় গাড়ির একটি সুলভ বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে। এক্ষেত্রে পুরো নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের হাতে তুলে না দিয়ে গবেষকদল বিশেষ কিছু ক্ষেত্রে একে “সেলফ ড্রাইভিং” ক্ষমতা দিয়েছেন। আর এই সুবিধা পেতে এখন ৫০০০ ব্রিটিশ পাউন্ড খরচ হলেও ভবিষ্যতে তা ১০০ পাউন্ডে কমে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

রোবটকার ইউকে সামনের দিকে তাক করা থ্রিডি লেজার স্ক্যানার এবং ক্যামেরা ব্যবহার করে চারপাশের পরিস্থিতির সাথে এর মধ্যে সংরক্ষিত ম্যাপ ডেটার তুলনা করে। অতঃপর সফটওয়্যারে বিশ্লেষণের মাধ্যমে সিস্টেম যদি গাড়ি চালনা করার ব্যাপারে আত্নবিশ্বাসী হয়, তাহলে এর ড্যাশবোর্ডের সাথে যুক্ত আইপ্যাড স্ক্রিনে ড্রাইভারকে নোটিফিকেশন দেবে। মানব চালক তখন সেটি নিশ্চিত করলে গাড়িটি নিজেই তার চাকার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেবে।

বর্তমানে একটি মডিফাই করা নিসান লিফ মডেলের কার এই পরীক্ষায় ব্যবহৃত হচ্ছে এবং গাড়িটি ৪০ মাইল/ঘন্টা দ্রুতির সাথে চালিয়ে দেখা হয়েছে।

গুগল চালক বিহীন গাড়িতে গ্লোবাল পজিশনিং সিস্টেম বা জিপিএস ইন্টিগ্রেশন থাকলেও রোবটকার ইউকে’তে এই প্রযুক্তি অনুপস্থিত, কেননা ম্যাপ সম্পর্কিত ডেটা এর মধ্যে আগে থেকেই দিয়ে দেয়া হবে। আর রোবটকার ইউকের চলাচল শুধু চেনাজানা এলাকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন আবিষ্কারক দলের সদস্য প্রফেসর পল নিউম্যান।

অবশ্য আপনি চাইলে নতুন কোন শহরের ম্যাপ যোগ করে গাড়িটিকে আপনার প্রয়োজনীয় রাস্তাঘাট চিনিয়ে দিতে পারবেন। তবে নির্দিষ্ট কোন দেশের/ শহরের আইনানুযায়ী এ ধরণের যানবাহন চালানোর বিষয়ে কি কি ব্যাখ্যা আছে সে ব্যাপারে অবশ্যই জেনে নেয়া উচিত।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 3,360 other subscribers

Comments