করটানার কাণ্ডে বিপাকে মাইক্রোসফট সিইও সত্য নাদেলা!

By -

microsoft-nadella-build

আপনার কি কখনো এরকম হয়েছে যে আপনি কোনো একটা কিছু তৈরি করেছেন বন্ধুদের দেখাবেন বলে যা ঘরে বসে নিজে নিজে বেশ ভালই ব্যবহার করেছিলেন কিন্তু বন্ধুদের সামনে যখন দেখাতে গেলেন তখন আর হচ্ছে না? তখন সবার আগ্রহান্বিত চোখের সামনে বিব্রত হয়ে বিষয়টি এড়িয়ে যেতে হয়। আর কপাল খারাপ হলে বন্ধুদের কাছে বেশ কিছুদিন হাসির পাত্র হয়েও থাকতে হয়।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 1,458 other subscribers

এ তো গেল বন্ধুদের কাছে, আর এরকম অবস্থা যদি হয় অপরিচিত মানুষে ভরা কোনো কনফারেন্সে তাহলে তো আর কথাই নেই!

এ রকমটা শুধু আমাদের ব্যক্তিগত জীবনেই নয় বরং বড় বড় কোম্পানির ক্ষেত্রেও হতে পারে। হোক সেটা কোনো প্রোডাক্ট কিংবা সার্ভিস, লাইভ অনুষ্ঠানে সেটি উপস্থাপনা করা কিছুটা চ্যালেঞ্জিং বটে। এরকম হতে পারে যে, দেখা যায় টেস্ট করার সময় নতুন কোনো সফটওয়্যার বেশ ভালই চলছে কিন্তু দর্শকদের সামনে এটি ভালভাবে কাজ নাও করতে পারে।

সম্প্রতি এরকমই এক পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছেন সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফটের সিইও স্বয়ং সত্য নাদেলা। হ্যাঁ, আপনি ঠিকই পড়েছেন।

সম্প্রতি সত্য নাদেলা সেলসফোরস ডটকম (Salesforce.com) এর ড্রিমফোরস কনফারেন্সে যখন তার কিনোট স্পিস দিচ্ছিলেন তিনি সিদ্ধান্ত নিলেন জনতার সামনে করটানার দক্ষতা দেখাবেন। কিন্তু দুর্ভাগ্য বশত নাদেলা করটানাকে যা বললেন তার বিপরীতে এটি খুবই হাস্যকর ফলাফল দিল।

নাদেলা বললেনঃ  “Show me my most at-risk opportunities”. অর্থাৎ তিনি তার সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ সুযোগগুলো সম্বন্ধে জানতে চাইলেন।

করটানা যা দেখালোঃ “Show me to buy milk at this opportunity.” কিন্তু হায়! করটানা তাকে দুধ কেনা সংক্রান্ত তথ্য দেখাতে চাইল!

নাদেলা একই কমান্ড দিয়ে আবার চেষ্টা করলেন কিন্তু করটানা এবার রিমাইন্ডার সেট করতে লাগল। হতাশ নাদেলা বলে উঠলেন “aww, come on!”

নাদেলা তৃতীয় বারের মত চেষ্টা করে বুঝতে পারলেন কাজ হবার নয় এরপর তিনি  “Sorry about that,” বলে জনতার কাছে দুঃখ প্রকাশ করলেন।

হতাশা জনক এই পরিস্থিতিকে নাদেলা খুবই বিনয়ের সাথে মোকাবেলা করলেন এবং সবশেষে কমান্ড পরিবর্তন করে (“show me the most risky opportunities.”) বললে করটানা সঠিক ফলাফল দিতে সক্ষম হয়।

প্রকৃত পক্ষে মিঃ নাদেলার কথা ঠিকভাবে বুঝে উঠতে পারেনি করটানা। তবে পরবর্তীতে একই কমান্ড ভিন্নভাবে দেয়ার পর করটানা সেটা বুঝতে পেরেছে। সত্য নাদেলা মূলত করটানার কাছে জানতে চেয়েছিলেন যে তার সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ সুযোগ কী কী আছে। কে জানে, করটানা নিজেই হয়ত তখন নাদেলার ‘সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ সুযোগ’ ছিল!

যাইহোক, সফটওয়্যারের ক্ষেত্রে এমনটিই হতেই পারে। অ্যাপলের সিরি’কে নিয়েও অনেক মজার মজার ঘটনা আছে।

তবে গত ফুটবল বিশ্বকাপে নিজের দূরদর্শীতা ও অভাবনীয় দক্ষতার প্রমাণ দেখিয়েছে মাইক্রোসফটের করটানা, যা অ্যাপল, গুগল সহ অন্য কোনো কোম্পানির ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাপ করতে পারেনি।

২০১৪’র ফুটবল বিশ্বকাপে নকআউট রাউন্ড থেকে ফাইনাল পর্যন্ত ১৬ টি ম্যাচের মধ্যে ১৫টির সঠিক ভবিষ্যদ্বাণী দিয়ে তাক লাগিয়ে দেয় মাইক্রোসফটের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ভিত্তিক ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাপ করটানা। উইন্ডোজ ফোন ৮.১+ চালিত স্মার্টফোনে উপলভ্য এই সফটওয়্যারটি বিং সার্চ ইঞ্জিনের প্রেডিকশন সার্ভিস।

উইন্ডোজ ১০ কম্পিউটারে করটানা বিল্ট-ইন রয়েছে। নিকট ভবিষ্যতেই এন্ড্রয়েড ও আইওএস অপারেটিং সিস্টেমেও আসছে করটানা।

প্রযুক্তির সব তথ্য জানতে ভিজিট করুন www.banglatech24.com সাইট। নতুন পোস্টের নোটিফিকেশন ইমেইলে পেতে এই লিংকে গিয়ে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

 

Comments

Leave a Reply