ব্র্যানো কি বাংলাদেশের ফ্লিপকার্ট হতে যাচ্ছে?

By -

branoo flipkart image

ফ্লিপকার্ট হচ্ছে প্রতিবেশী দেশ ভারতের জনপ্রিয় ই-কমার্স ওয়েবসাইট যেটি উদ্ভাবনী চিন্তাভাবনা ও গ্রাহকদের চাহিদা অনুযায়ী সেবা প্রদান করে দেশটিতে শক্ত অবস্থান গড়ে নিয়েছে। ভারতীয় ই-কমার্স বিশেষজ্ঞ সেজাল বমবলি সম্প্রতি এক আর্টিকেলে লিখেছেন, বাংলাদেশের অন্যতম দ্রুত বর্ধনশীল অনলাইন শপিং সাইট ব্র্যানো ডটকম হতে পারে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ও বৈপ্লবিক এক ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম, ঠিক যেমনটি ফ্লিপকার্ট করেছে ভারতে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 1,459 other subscribers

এরকম কিছু অর্জন সহজ হবেনা। ব্র্যানো’র সিইও, স্বয়ং রাজীব রায় নিজেই মন্তব্য করেছেন যে, তাদের এখনও অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে। তবে সাইটটি নিয়ে তিনি আশাবাদী।

“ভেজাল থেকে মুক্ত হতে ব্র্যানো’র সাথেই থাকুন কারণ গ্রাহক সন্তুষ্টিই আমাদের মূল লক্ষ্য” এই স্লোগান নিয়ে ২০১৪ এর মাঝামাঝি সময়ে হোম ডেলিভারি ভিত্তিক সার্ভিসের কার্যক্রম শুরু করে ব্র্যানো। প্রতিষ্ঠানটি সরাসরি দুবাই থেকে নামীদামী সব ব্র্যান্ডের আসল প্রসাধনী পণ্য আমদানি করে অনলাইনে বিক্রি করে থাকে। আন্তর্জাতিক বাজারে জনপ্রিয় সব প্রসাধনী সামগ্রীর সম্ভার নিয়ে দারুণ গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। সেইসাথে নিয়মিত বিরতিতে যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন সব প্রোডাক্ট ক্যাটেগরি।

ব্র্যানো’র অন্যতম শক্তিশালী দিক হচ্ছে এর সহজ ও গ্রাহকবান্ধব ব্যবহারবিধি। এখানে কেনাকাটা করতে কোনো রেজিস্ট্রেশন কিংবা লগিনের প্রয়োজন হয়না। মাত্র ১ মিনিটের মধ্যেই ব্রানোতে পণ্য অর্ডার করা যায়। এছাড়া ‘ট্র্যাকিং’ সিস্টেমের মাধ্যমে ক্রেতারা তাদের অর্ডার ডেলিভারি পাওয়ার আগে সেগুলোর অবস্থানও ট্র্যাক করতে পারেন। আর সেই সাথে সাইটে কাঙ্ক্ষিত পণ্য উপলভ্য না হলে তা যোগ করার জন্যও অনুরোধ পাঠানোর ব্যবস্থা রয়েছে। ফলে যে কেউ তাদের পছন্দের যেকোনো প্রসাধনী সংগ্রহ করে নিতে পারেন ব্রানো ডটকম থেকে। আর এর চমৎকার গ্রাহকসেবা ও কেয়ারলাইন তো রয়েছেই।

ব্র্যানো’তে ক্রেতারা ক্যাশ অন ডেলিভারি ও অনলাইন পদ্ধতিতে ডেবিট/ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ক্রয়কৃত পণ্যের দাম পরিশোধ করতে পারেন। সম্প্রতি অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে ইজিপেওয়ে এর সাথে এ সংক্রান্ত একটি চুক্তি করেছে ব্র্যানো কর্তৃপক্ষ।

ই-কমার্স সাইটটির সিইও রাজীব রায় নিজে একজন প্রকৌশলী। সফটওয়্যার ও ওয়েব ডেভেলপমেন্ট বিষয়ে তার এক দশকের বেশি সময়ের অভিজ্ঞতা ব্র্যানোর অগ্রযাত্রায় বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। মিঃ রাজীবের নেতৃত্বাধীন চট্টগ্রাম ভিত্তিক আইটি কোম্পানি ‘রয়েক্স টেকনোলোজিস’ রয়েছে ব্র্যানোর কারিগরি সহযোগিতায়। আর এভাবেই ব্র্যানো পরিণত হচ্ছে প্রতিশ্রুতিশীল এক ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানরূপে।

প্রযুক্তির সব তথ্য জানতে ভিজিট করুন www.banglatech24.com সাইট। নতুন পোস্টের নোটিফিকেশন ইমেইলে পেতে এই লিংকে গিয়ে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

 

Comments

Leave a Reply