যে কারণে নকিয়া ৩৩১০ ফোনটি আপনার কেনা দরকার

By -

গতকাল মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে নকিয়া ও এইচএমডি গ্লোবাল তিনটি নকিয়া এন্ড্রয়েড ফোন ও একটি নকিয়া ফিচার ফোন বিশ্বব্যাপী লঞ্চ করার ঘোষণা দিয়েছে। এন্ড্রয়েড ফোনগুলো হচ্ছে নকিয়া ৬, নকিয়া ৫ ও নকিয়া ৩, আর ফিচার ফোনটি হল নকিয়া ৩৩১০ যেটি নকিয়া এস৩০+ অপারেটিং সিস্টেমে চলবে। আজকাল সবারই একটি স্মার্টফোন থাকলে বেশ সুবিধা হয়। কিন্তু এই ২০১৭ সালেও নকিয়া ৩৩১০ এর মত একটি ফিচার ফোন আপনি কেন কিনতে চাইবেন?

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 1,256 other subscribers

এর যথেষ্ট কারণ আছে। চলুন জেনে নিই যেসব কারণে আপনি নকিয়া ৩৩১০ (২০১৭) এর নতুন মডেলের একটি ফোন কিনতে পারেন।

 

আত্নবিশ্বাস

নকিয়া ফোন মানেই একসময় আত্নবিশ্বাসের প্রতীক ছিল। মাঝখানে প্রায় বিলুপ্ত হতে গিয়েও শেষ পর্যন্ত আবারও ফিরে এসেছে নকিয়া। কোম্পানিটির ডিভাইসগুলোর বিল্ড কোয়ালিটির সুনাম করেন সবাই। নকিয়া ৩৩১০ এর নতুন মডেলের ফোনটি মজবুত এবং দীর্ঘস্থায়ী হবে বলেই জানিয়েছেন এর নির্মাতারা। সুতরাং এরকম একটি ফোন থাকলে বিভিন্ন পরিবেশে যেমন ইচ্ছে ব্যবহার করা যাবে।

 

ব্যাটারি

নকিয়া ৩৩১০ এ ১২০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেয়া হয়েছে। ফোনটির স্ট্যান্ডবাই টাইম ১ মাস! আর এতে একটানা কথা বলা যাবে ২২ ঘন্টার বেশি সময় ধরে। আপনি যদি এমপিথ্রি শোনেন, তাহলে এর চার্জ টিকবে ৫১ ঘন্টা পর্যন্ত। এফএম রেডিও শুনতে পারবেন ৩৯ ঘন্টা। আজকালকার স্মার্টফোনের চেয়ে ব্যাটারির দিক দিয়ে পিছিয়ে নেই বলা চলে (?!?)

 

কালার স্ক্রিন ও সেইসাথে স্নেক গেইম

নকিয়া ৩৩১০ এর প্রথম মডেলটির সাদাকালো স্ক্রিনে সবুজ আলো ছিল। নতুন মডেলে আপনি কালার মনিটর পাচ্ছেন। সেই সাথে থাকছে এক সময়কার তুমুল জনপ্রিয় স্নেক গেম। লোভ সামলাবেন কীভাবে? 😉

ক্যামেরা

নামে নকিয়া ৩৩১০ হলেও এখন সময়টাও তো বিবেচনা করতে হবে! সালটা এখন ২০১৭। এই যুগে ক্যামেরা ছাড়া ফোন হয় নাকি? নকিয়া টিম এটা জানে, আর তাইতো নতুন ৩৩১০ ফোনের সাথে দেয়া হয়েছে ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সাথে এলইডি ফ্ল্যাশ!

 

মেমোরি

নকিয়া ৩৩১০ ফোনের ইন্টারনাল মেমোরি ১৬ মেগাবাইট, আর সেই সাথে বাড়তি ৩২জিবি মেমোরি কার্ডও ব্যবহার করা যাবে।

 

ইন্টারনেট

আগেই বলেছি, সময়টা এখন আধুনিক। এজন্যই নকিয়া ৩৩১০ ফোনে এসেছে ইন্টারনেট সুবিধা। এতে আপনি অপেরা মিনির সাথে নেট ব্রাউজ করতে পারবেন। ফেসবুকও চালানো যাবে!

 

শেয়ারিং

কথায় বলে “শেয়ারিং ইজ কেয়ারিং”। ব্যাখ্যা দিলে এই বাক্যটির বিশাল ‘ভাব সম্প্রসারণ’ করতে পারতাম, কিন্তু এখন সেটা সম্ভব হচ্ছেনা। মূল কথায় আসি- নকিয়া ৩৩১০ এ বিভিন্ন কনটেন্ট শেয়ার করার জন্য থাকছে ব্লুটুথ ও স্ল্যাম। নেট ও মাইক্রোইউএসবি তো থাকছেই।

ডুয়াল সিম

নকিয়া ৩৩১০ ফোনটিতে দুটি সিম ব্যবহার করা যাবে। সুতরাং আপনার স্মার্টফোনের পাশাপাশি অন্য কোনো সিম ব্যবহার করতে চাইলে ৩৩১০ অসাধারণ পার্টনার হতে পারে।

 

এতকিছু সুবিধা থাকার কারণে রঙিন কভার ও রঙিন স্ক্রিনের এই ফিচার ফোনটি আপনি আপনার সেকেন্ডারি ফোন হিসেবে কিনতেই পারেন। ভ্রমণে যাওয়ার সময় কিংবা সচরাচর যারা দূরের যাত্রায় থাকেন তারা সবার সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রাখার জন্য দারুণ ব্যাটারি ব্যাকআপ সমৃদ্ধ এই ফোনটি ব্যবহার করতে পারেন। সহজে পরিচালনা করা যায় এরকম একটি ফোন যারা খুঁজছেন, তাদের জন্যও নকিয়া ৩৩১০ হতে পারে একটি আদর্শ ফোন।

নকিয়া ৩৩১০ ফোনের দাম হতে পারে ৪২০০ টাকার মত। এটি আন্তর্জাতিক বাজারে আসবে চলতি বছরের ২য় প্রান্তিকে। আপনি ফোনটি হাতে পেতে পারেন এপ্রিল থেকে জুনের মধ্যে।

প্রযুক্তির সব তথ্য জানতে ভিজিট করুন www.banglatech24.com সাইট। নতুন পোস্টের নোটিফিকেশন ইমেইলে পেতে এই লিংকে গিয়ে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

 

Comments

Leave a Reply